ওয়েব ডিজাইন শেখার ওয়েবসাইট ও বই লিস্ট ২০২২

ওয়েব ডিজাইন

ওয়েব ডিজাইন শেখার ওয়েবসাইট : ইন্টারনেটে প্রদর্শিত ওয়েবসাইটগুলোর ডিজাইনকে web design বলা হয়। পূর্বে ওয়েব ডিজাইন করার সময় ডেস্কটপ ব্রাউজারগুলোকে ফোকাস করা হতো। তবে বর্তমানে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের অধিকাংশই মোবাইল ব্যবহারকারী হওয়ায় 2010-এর দশকের মাঝামাঝি থেকে, মোবাইল এবং ট্যাবলেট ব্রাউজারগুলোর জন্যও ওয়েব ডিজাইন করা গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে।

প্রতিদিন হাজার হাজার নতুন নতুন ওয়েবসাইট অনলাইনে আসছে। আর কথায় আছে, প্রথমে দর্শনধারী, পরে গুণবিচারী। তাই, ওয়েবসাইটে ভিজিটর ধরে রাখতে ওয়েবসাইটের ডিজাইন খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এজন্য ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটগুলোতে ওয়েবসাইট ডিজাইনারদের ( Web Designer ) চাহিদা প্রচুর এবং স্বাভাবিকভাবেই চাহিদার পরিমাণ আরো বৃদ্ধি পাচ্ছে।

ওয়েব ডিজাইন মাত্র একদিনেই খুব সহজে শিখে ফেলুন ওয়েব ডিজাইনের আদ্যপান্ত!

শিরোনামটা বেশ লোভনীয়, তাই নয় কি? অথবা যদি বলা হয় অল্প দিনেই web design শিখে মাসে লক্ষ টাকা আয় করুন। শুধু আপনি নয়, এমন শিরোনাম দেখে আমিও অবাক হয়েছিলাম। নিঃসন্দেহে এটা লোভনীয় অফার বটে!

ফ্রিল্যান্সিং যারা শিখতে চান, তাদের মাঝে বেশ ভালো একটি অংশ নিজের ক্যারিয়ার ওয়েব ডিজাইনার হিসেবে গড়তে আগ্রহী। প্রতিদিন প্রচুর উঠতি ফ্রিল্যান্সার ওয়েব ডিজাইন কি, কিভাবে শেখা যায়, ওয়েব ডিজাইন শেখার ওয়েবসাইট এবং কোর্স সম্পর্কে জানতে চান। আর এই সুযোগে কিছু মানুষ প্রতারণার ফাঁদ খুলে বসে আছে, ফলাফল! ফ্রিল্যান্সিং সম্ভব না এমন মনোভাব, যা দ্রুত হতাশা ও ডিপ্রেশনে রূপ নেয়!

বাস্তবতা হলো web design শেখার বিষয়টা আপনার শিখন কৌশল আর অধ্যাবসায়ের উপর নির্ভর করে।

অধ্যাবসায় যদিও আপনার হাতে, তবে শিখন কৌশল অর্থাৎ ওয়েব ডিজাইন শেখার কার্যকরী কিছু ওয়েবসাইট এবং বইয়ের ব্যাপারে আমরা আপনাকে সঠিক তথ্য দিয়ে সাহায্য করতে পারি।

বর্তমান সময়ে তথ্যের প্রাচুর্য নিঃসন্দেহে অনেক বেশি, তবে ওয়েব ডিজাইন শেখার সঠিক কৌশল খড়ের গাদায় সুঁচ খোঁজার মতো ব্যাপার হতে পারে।

আপনার সময় এবং শ্রম বাঁচানোর জন্য জনপ্রিয় কিছু ওয়েব ডিজাইন শেখার ওয়েবসাইট এবং বইয়ের লিস্ট নিয়ে এনেছি। তবে, চলুন প্রথমেই Web Design কি সেসম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

ওয়েব ডিজাইন কি : what is web design in Bangla?

ওয়েব ডিজাইন গ্রাফিক ডিজাইনের এমন একটি সেক্টর যা একটা ওয়েবসাইট দেখতে কেমন হবে বা তার রূপ কেমন হবে তা নির্ধারণ করা। বিষয়টা কঠিণ মনে হলো কি? চলুন আরো একটু সহজভাবে জানা যাক।

এই মুহূর্তে থাকার জন্য নিশ্চয়ই আপনার একটা নির্দিষ্ট রুম (ওয়েবসাইটের রূপক অর্থে) আছে! আপনি নিজের ঘরটা প্রতিদিন খুব সুন্দর করে সাজাতে বেশ কিছু কাজ করবেন, যেমন ধরুন ঘর ঝাড়ু দেওয়া, বিছানা পরিপাটি করে রাখা ইত্যাদি।

ঠিক তেমনি আপনার মতোই একজন ওয়েব ডিজাইনারের কাজ হবে তার ঘর বা ওয়েবসাইটির টেম্পলেট তৈরির মাধ্যমে সুন্দরভাবে সাজানো। যেমন: ধরুন এটার লেয়াউট কেমন হবে, সাইডবার হবে কিনা, হেডারে মেন্যু কোথায় হবে, ইমেজ বা পোস্টগুলো কিভাবে প্রদর্শিত হবে ইত্যাদি ইত্যাদি। আসলে বিষয়টা অনেকটা গ্যালারিতে চিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করার মতোই।

Web Design এমন একটি সেক্টর, যেখানে আপনি প্রতিনিয়ত শেখা ও নতুনভাবে সাজানো ও ডিজাইন করার সুযোগ পাবেন। তবে যদিও এখানে আমরা ওয়েব ডিজাইন শেখার ওয়েবসাইট ও বই সম্পর্কিত বিষয়ে গুরুত্ব আরোপ করেছি, তবুও ওয়েব ডিজাইন শেখার জন্য আপনার প্রাথমিক কিছু বিষয় সম্পর্কে ধারনা রাখতে হবে। চলুন সেই বিষয়গুলো সম্পর্কে একটু জেনে নেওয়া যাক :

ওয়েব ডিজাইন করতে কি কি শিখতে হবে?

1. HTML(এইচটিএমএল): প্রথমত, HTML কে বলা হয় কোডিং এর মা। বলুন তো কেন? চলুন একটা উদাহরণ দেখা যাক, একটি বাড়ির কাঠামো তৈরি করতে যেমন ইটের প্রয়োজন হয়। ঠিক তেমনি কোনো একটি ওয়েবসাইটের কাঠামো তৈরি করতে HTML প্রয়োজন হয়। এখন তো কাঠামো তৈরি হলো, এবার পালা সেই কাঠামো বিভিন্ন কোডিং এর সাহায্যে মডিফাই ও ডেভেলপমেন্ট করা। এজন্যই, ওয়েবসাইটের কাঠামো তৈরি করার জন্য প্রথমে  আপনাকে অবশ্যই HTML সম্পর্কে বেসিক ধারনা রাখতে হবে। আর তাইতো কোডিং জগতের মা HTML।

2. CSS(সিএসএস): Web Design শিখতে দ্বিতীয় পর্যায়ের আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ ভাষা CSS সম্পর্কে আপনাকে জানতে হবে। এখানে, আপনি CSS আর HTML এর মধ্যে একটা দারুণ বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক লক্ষ করতে পারবেন। একটি ওয়েবসাইটের কাঠামো তৈরিতে যেমন HTML এর প্রয়োজন হয়, ঠিক একইভাবে ওয়েবসাইটের বডি সুন্দরভাবে সাজাতে CSS এর ব্যবহার প্রয়োজন হয়। তবে প্রথমে আপনাকে HTML শিখতে হবে, এবং পরবর্তীতে CSS শিখতে হবে।

3. Photoshop(ফটোশপ): এখন আপনার মনে হতে পারে ওয়েব ডিজাইন শিখতে তো কোডিং জানতে হয়। তাহলে ফটোশপের কাজটা আসলে কি? কোন কাজ করার আগে নিশ্চয় আপনি একটি খসড়া তৈরি করে নেবেন। হ্যাঁ, ঠিক ধরেছেন। কাজের সুবিধার্থে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করার আগে, ওয়েবসাইটের ডিজাইন কেমন হবে, তার একটি প্রাথমিক ডিজাইন অর্থাৎ একটি খসড়া তৈরি করতে হয়। আর এই প্রাথমিক ডিজাইন তৈরির জন্য ফটোশপের সাহায্য নিতে হয়।

ওয়েব ডিজাইন এর সুবিধা

১. সৃজনশীলতার বিকাশ ঘটাতে পারবেন: আপনার প্রতিটি ওয়েবসাইট ডিজাইন নিশ্চিতভাবেই আলাদা হবে। তাই, ওয়েবসাইট ডিজাইনের কাজ আপনাকে আপনার দৈনন্দিন কাজের শৈল্পিক দক্ষতা ব্যবহার করার সুযোগ দিবে। আপনার যদি সুন্দর নান্দনিক অনুভূতি থাকে তাহলে আপনি আপনার ডিজাইনিং পেশাকে বেশ উপভোগ করতে পারবেন।

২. নো ডিস্টার্ব: যদি আপনি একা একা কাজ করতে পছন্দ করেন, আবার আর্থিক নিরাপত্তার কথা ভেবে কোন কোম্পানীতেও কাজ করতে চান, তাহলেও ওয়েব ডিজাইনিং বেস্ট অপশন। কারণ, এজেন্সিগুলোতেডিজাইনারদের খুব কমই বিরক্ত করা হয়, কারণ বেশিরভাগ প্রকল্পে নতুন কিছু প্রয়োজন, এবং এজন্য আপনার চিন্তায় ব্যাঘাত ঘটাতে চাইবে না।

৩. তুলনামূলক সহজ: ওয়েব ডিজাইনারদের সাধারণত HTML, CSS এবং JavaScript জানতে হয়। সুতরাং, একজন ডেভেলপারের মতো প্রচন্ড কোডিং দক্ষতার  দরকার হয় না, তবে ক্রিয়েটিভিটি থাকা চাই।

৪. ফ্রিল্যান্সার হিসেবে কাজের সুযোগ: বর্তমানে web designing এমন একটি কাজ যার চাহিদা শুধু বাড়ছেই। সুতরাং, আপনার স্কিল নিয়ে আত্মবিশ্বাসী এবং অধ্যবসয়ী হলে ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটে সফলতা পাওয়ার সম্ভাবণা খুবই বেশি। যা আপনাকে স্বাধীনভাবে কাজের সুযোগ দিবে।

৫. ভালো ইনকাম: প্রতিটি পেশাতেই ভালো ইনকাম থাকে না। ফ্রিল্যান্সারদের কাজের উপর ভিত্তি করে ইনকাম কম বেশি হয়। একজন ওয়েব ডিজাইনার চাইলে নিজেকে ফ্রিল্যান্সার হিসেবে কাজ করতে পারেন, আবার কোন কোম্পানীতেও জয়েন করতে পারবেন। এবং দুই ক্ষেত্রেই খুব ভালো ইনকাম করা যায়। মিডিয়াম কোয়ালিফাইড ডিজাইনাররাও কোন কোম্পানীতে ৫০০০০ টাকার বেশি পেয়ে থাকেন। এছাড়া, ফ্রিল্যান্সিং এ সাইট ডিজাইনের উপর ভিত্তি করে ১০০ শুরু করে থেকে ১০০০-৩০০০ ডলার নিয়ে থাকেন।

ওয়েব ডিজাইন শেখার ওয়েবসাইট লিস্ট

আপনি হয়তো ভাবছেন আপনার ওয়েব ডিজাইন কোর্সের প্রয়োজন হবে না, কারণ Web Designing সম্পর্কে আপনার বেসিক ধারণা আছে। কিন্ত এক্ষেত্রে বাস্তবতা হচ্ছে, বেগিনার কিংবা কিছুটা অভিজ্ঞতা থাকলেও ওয়েব ডিজাইনে পারদর্শী হতে হলে নিজেকে প্রতিনিয়ত আপডেট রাখতে হবে। এর বিশেষ কারণটা হচ্ছে পরিবর্তন।

Web Design দুনিয়ায় প্রতিনিয়ত ওয়েব ডিজাইনের সরঞ্জাম পরিবর্তিত হচ্ছে, নতুন ভাষা, নতুনভাবে উপস্থাপন, আরো সুন্দর ও আকর্ষণীয় ডিজাইন করার চেষ্টা থেকেই নতুন বিষয়গুলোর অন্তর্ভুক্তি হয়। তাই এক্ষেত্রে সঠিকভাবে শেখার জন্য ওয়েব ডিজাইন শেখার ওয়েবসাইট এবং কোর্সগুলোর প্রয়োজনীয়তা আলাদা করে বলা বাহুল্য।

অনেকেই শেখার জন্য কোন বিশ্বস্ত মাধ্যম চান। তাই আজ আপনার জন্য ফ্রি এবং পেইড কিছু কোর্স উপস্থাপন করা হলো, যেখান থেকে নিজের মনের মতো যেকোন কোর্স আপনি বাছাই করতে পারবেন।

তবে আপনাকে প্রথমেই মনে রাখতে হবে যে আমরা মূলত ওয়েব ডিজাইন শেখার অনলাইন কোর্স গুলোর উপর গুরুত্ব দিয়েছি। Web Design করার জন্য কোন ল্যাঙ্গুয়েজ শেখার বিষয় উল্লেখ করছি না।

১. ট্রিহাউজ

সবদিক থেকে বিচার করলে ট্রিহাউজ ওয়েব ডিজাইন শেখার সেরা অনলাইন ওয়েবসাইট।এখানে আপনি সম্পূর্ণ কোর্স অর্থাৎ জাভাস্ক্রিপ্ট, পাইথন, রুবি সম্পর্কেও সম্যক ধারণা পাবেন।

তাছাড়া এটি ওয়েব ডিজাইন সম্পর্কিত সাম্প্রতিক তথ্য উপাত্তের প্রতি বিশেষভাবে জোর দেয়। তবে এটি একটি পেইড কোর্স এবং ইংরেজী ভাষায় সহজভাবে শেখানো হয়।

২. ক্রিয়েটিভ ইন্সটিটিউব

ISO সার্টিফাইডের প্রতিষ্ঠান হচ্ছে ক্রিয়েটিভ ইন্সটিটিউব। সুতরাং, বুঝতেই পারছেন তাদের  ভিডিও গুলো প্রফেশনাল ভাবেই তৈরি করা হয়েছে।

মজাদার বিষয় হলো, আপনি নিজের একজন গাইড সহকারে কোর্স শিখতে চাইলে, ক্রিয়েটিভ ইন্সটিটিউব হতে পারে আপনার প্রথম পছন্দ। কারণ তাদের কোর্স করতে আপনাকে সরাসরি তাদের প্রতিষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে হবে এবং তারা শুরু থেকে সব ট্রেনিংয়ের মাধ্যমে আপনাকে একজন দক্ষ ফ্রিলান্সার হিসেবে তৈরি করবে।

৩. কোডার্স ট্রাস্ট

কোডার্স ট্রাস্ট বিগিনারদের কথা মাথায় রেখে কোর্স তৈরি করে রাখেন। তাদের ৯৬ ঘন্টা সময়ব্যাপী মোট ৩২ টি ভিডিও রয়েছে। শেখার ব্যাপারে যদি আপনি আগ্রহী হন, তাহলে তাদের কাছে নিয়মিত ক্লাস করলে সহজেই সব কিছু নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে শিখে নিতে পারবেন।

একইসাথে, কোর্সটি করতে বা অতিরিক্ত তথ্য সম্পর্কে জানতে তাদের ওয়েবসাইট ব্রাউজ করে দেখে আসতে পারেন।

৪. w3School

ওয়েব ডিজাইন শেখার ওয়েবসাইটওয়েব ডিজাইন শেখার জন্য সেরা ওয়েবসাইট এর প্রতিযোগিতায় w3School কম যায় না। গুগলে যেকোন Web Design Code লিখে সার্চ করলে সার্চ রেজাল্টের প্রথম দিকেই থাকে w3School. তাদের ওয়েবসাইটটি মূলত ওয়েবসাইট ডেভেলপমেন্ট এবং ওয়েব ডিজাইন শেখার উদ্দেশ্যেই অনলাইনে নিয়ে আসা।

w3school থেকে ফ্রিতেই আপনি ওয়েব ডিজাইন শিখে নিতে পারবেন এবং তারা পুরো প্রক্রিয়াটি স্টেপ বাই স্টেপ আলোচনা করে থাকে।

তবে ভিডিও কোর্সটি সম্পন্ন করতে 9.99 ডলার খরচ হবে। কোর্সটি ইংরেজীতে হলেও ডিজাইন শেখার বিষয়গুলো খুব সহজ ভাবে বোঝানো হয়েছে।

৫. ইউডেমি এবং স্কিলশেয়ার

ওয়েব ডিজাইন শেখার ওয়েবসাইট তালিকায় পরবর্তী সাইটগুলো হলো ইউডেমি এবং স্কিলশেয়ার। Web Design ছাড়াও অন্যান্য যেকোন সফট স্কিল ও হার্ড স্কিল শেখার সেরা দুটি কোর্স করার সাইট।

বিশেষত ইউডেমিতে আপনি ওয়েব ডিজাইন সংক্রান্ত একাধিক কোর্স পেয়ে যাবেন। স্কিলশেয়ারের মাধ্যমে আপনি ফ্রিতে অথবা পেইড লার্নার হিসেবে কোর্স কমপ্লিট করতে পারবেন।

একই সাথে আপনি যদি একটি লিংকইন আইডির মালিক হয়ে থাকেন, তাহলে আপনার হাতের কাছে থাকা ডিভাইসের সাহায্যে লিংকইন প্লাটফর্মে সেরা কিছু ওয়েব ডিজাইন ট্রেনিং খুব সহজেই পেয়ে যাবেন।

এসব কোর্স করার সময় ভিডিওগুলো ডাউনলোড করে জমা রাখতে পারেন। আপনার অ্যান্ড্রয়েড ফোন, ল্যাপটপ অথবা যেকোন ডিভাইস ব্যবহার করতে পারেন।

ওয়েব ডিজাইন কোর্সগুলো ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েব ডিজাইন, এইচটিএমএল, সিএসএস, ফটোশপ ইত্যাদি বিষয়েও পরিপূর্ণ ধারণা দেয়। একবারে নতুনদের শেখার জন্য সহজ করেই শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত সম্পূর্ণ কোর্সগুলো তৈরি করা হয়েছে।

শুধু তাই নয়, ইংরেজী ছাড়াও বাংলা ভাষাতেই বাংলাদেশের কিছু প্রতিষ্ঠান বা ওয়েব ডিজাইন শেখার ওয়েবসাইট হলো-

  1. ইশিখন ডট কম
  2. আইটিবাড়ি ডট কম
  3. ঘুরি লার্নিং
  4. বহুব্রীহি, ইত্যাদি।

আপনি এসব দেশী সাইটের Bangla web design course থেকেও সহজে কোর্সগুলো কিনে প্রাকটিস শুরু করতে পারেন। আরো কিছু বাংলাদেশী অনলাইন কোর্স করার সাইট এবং ফ্রি কোর্স তালিকা দেখতে আমাদের পূর্বের আর্টিকেলগুলো দেখে নিতে পারেন।

ওয়েব ডিজাইন শেখার বই তালিকা

ওয়েব ডিজাইন শেখার সাইট সম্পর্কে তো জানা হলো, এবার চলুন web design শেখার বই সম্পর্কে জানা যাক।

১. সিএসএস বাংলা ই-বুক: ২৯ জানুয়ারি ২০১৩ প্রকাশিত লেখক আব্দুল্লাহ আল ফারুকের লেখা সিএসএস বাংলা ই-বুক নামের বইটি রাখতে পারেন গুগল ড্রাইভে নিজের পছন্দের বইয়ের তালিকায়। বইটিতে কোডিং/প্রোগ্রামিং সম্পর্কিত তথ্যগুলো সঠিক ও সুন্দরভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে।

২. JavaScript: বইটি লিখেছেন আব্দুল্লাহ আল ফারুক। এই বইটিতেও কোডিং/প্রোগ্রামিং সম্পর্কে লেখা হয়েছে। একইসাথে আপনি কাজের ফাঁকে ওয়েবসাইট ডিজাইন সংক্রান্ত টিউটোরিয়াল দেখার পাশাপাশি এই বইটি ই-বুক আকারে ফ্রিতে পড়ার সুযোগ পাচ্ছেন।

৩. লেখা হাতে কলমে জাভাস্ক্রিপ্ট: জুনায়েদ আহমেদের লেখা হাতে কলমে জাভাস্ক্রিপ্ট বইয়ের সাহায্যে ওয়েবসাইটে যেকোন ধরণের ডিজাইন তৈরি করা থেকে শুরু করে, মাউস অথবা স্মার্টফোনে টাচ এর মাধ্যমে লাইভ একটিভিটি এনিমেশন সৃষ্টি করা, কিউ-আর কোড প্রদান, জটিলতর তথ্য প্রদান, লোকেশন ইত্যাদি কাজ, ব্রাউজারের নাম, আইপি, আইএসপি সকল তথ্য ব্যবহারকারীদের জানানো অর্থাৎ জাভাস্ক্রিপ্টের আদ্যপান্ত বেশ সহজভাবে তুলে ধরা হয়েছে।

৪. প্রোগ্রামিং কনটেস্ট ডেটা স্ট্রাকচার ও অ্যালগরিদম : লেখক মাহবুবুল হাসান।

এছাড়াও ওয়েব ডিজাইন শেখার এই বইগুলোতে জাভাস্ক্রিপ্ট কীভাবে ব্যবহার করবেন, সেগুলো প্র্যাকটিক্যাল নলেজকে আরো সহজ করতে সুচারু রূপে বাস্তবিক জ্ঞান তুলে ধরা হয়েছে।

আশা করা যায় এই জ্ঞান দিয়ে পরবর্তীতে আপনি জাভাস্ক্রিপ্টের দুনিয়াতে একধাপ এগিয়ে যেতে পারবেন। বইয়ের জগত শুধু এখানে থেমে নেই সাথে আছে হাবলুদের জন্য প্রোগ্রামিং, মাস্টারিং ওয়েব ডেভেলপমেন্ট, সবার জন্য ওয়ার্ডপ্রেস ইত্যাদি।

ওয়েব ডিজাইন শেখার ওয়েবসাইট নিয়ে শেষ কথা

ওয়েব ডিজাইন শেখার বই পড়ে কিংবা সারাদিন ওয়েব ডিজাইন শেখার ওয়েবসাইট থেকে টিউটোরিয়াল, ভিডিও দেখলেও আপনার Web Design সম্পর্কে জ্ঞান জিরোই থাকতে পারে।

কারণ পরিশ্রম সাফল্যের চাবি কাঠি। একজন সফল ওয়েব ডিজাইনার হতে হলে যেমন আপনাকে যথেষ্ট সময় এবং অধ্যাবসায় বরাদ্দ রাখতেই হবে।

কোর্সগুলো যথেষ্ট সময় সাপেক্ষ এবং তুলনামূলক বড়। সুতরাং, আপনার অধ্যাবসায় এবং পরিশ্রমের মাধ্যমে কাজটি শিখে নিলে আপনার জন্য উচ্চ আয়ের এবং সম্মানজনক পেশা হতে পারে।

আশা করি, ওয়েব ডিজাইন কি, এবং ওয়েব ডিজাইন শেখার উপায় সম্পর্কে আপনি বেশ ভালো একটা ধারণা পেয়েছেন। ওয়েব ডিজাইন সম্পর্কিত অন্য কোন প্রশ্ন থাকলে কমেন্ট করে জানাতে পারেন।

2 thoughts on “ওয়েব ডিজাইন শেখার ওয়েবসাইট ও বই লিস্ট ২০২২”

Leave a Comment

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

error: Content is protected !!