ইন্টারনেট! একবিংশ শতাব্দীতে বসবাসকারী মানুষের কাছে মৌলিক চাহিদায় পরিণত হয়েছে যেন। খোঁজ নিলে আপনার চারপাশে এমন অনেক মানুষ খুঁজে পাওয়া যাবে যাদেরকে একবেলা খাবার না দিলেও অভিযোগ করবেনা যদি তাকে ইন্টারনেট কানেকশন আছে এমন কোথাও রাখা হয়। শিশু থেকে বৃদ্ধ সবার কাছে ইন্টারনেট এখন অত্যন্ত জরুরী।

লোডশেডিং এর কারণে সেই ইন্টারনেট কানেকশন যদি একটু বন্ধ হয়ে যায়, দেখবেন আশে-পাশের অনেকেরই দম বন্ধ হওয়ার উপক্রম হতে শুরু করেছে। না তাদের জন্য নয়, কিন্তু এমন অনেকেই আছেন যারা আজ ইন্টারনেট ছাড়া অচল, তাদের সবকিছুই ইন্টারনেট কেন্দ্রিক।

বিশেষ করে যারা অনলাইন বিজনেস করেন এবং ফ্রিল্যান্সারদের ইন্টারনেট কানেকশন ছাড়া এক মূহুর্তও চলেনা, কাজের সময় হঠাৎ বিদ্যুৎ চলে গেলে নেট বন্ধ হওয়ায় বিশেষ ক্ষতি হয়ে যেতে পারে। কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে বিদ্যুৎ চলে গেলে ওয়াইফাই বন্ধ হেয় কেন?

লোডশেডিং হলে ইন্টারনেট কানেকশন থাকেনা যে কারণে :

আমাদের মধ্যে অনেকেরই এমন ভুল ধারণা রয়েছে যে ওয়াইফাই বা ব্রডব্যান্ড লাইন যেহেতু বিদ্যূৎ লাইন দিয়ে টানা হয়, তাই এদের মাঝে আন্তঃসম্পর্ক রয়েছে, যার কারণ ইলেকট্রিসিটি না থাকলে ওয়াইফাই কানেকশন থাকতে পারেনা।

আসলে এমন কিছুই নয়। কিন্ত একটু যদি গুগলে why does the wifi ( broadband ) line drop when the power goes off? লিখে সার্চ করলেই জানতে পারতেন।

ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট নেওয়ার জন্য আমরা দেয়ালের সাথে আটকানো ফাইবার অপটিক্যাল নেটওয়ার্ক বা Optical Network Terminal (ONT) এবং রাউটার ব্যবহার করি। দুটি ডিভাইসেই ইন্টারনেট ধরে রাখার জন্য পাওয়ার সোর্স প্রয়োজন।

বিদ্যুৎ না থাকলে পাওয়ার না পাওয়ায় ডিভাইসটি চলতে পারেনা এবং আমরাও ইন্টারনেট কানেকশন লস করি। তাহলে কি কারেন্ট না থাকলে ইন্টারনেট চালানোর কোন উপায় নেই? অবশ্যই আছে।

বিদ্যুৎ না থাকলেও ওয়াইফাই ধরে রাখার উপায় :

ব্রডব্যান্ড লাইনের জনপ্রিয়তা দিনদিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। তাই ডেভলপাররাও সুবিধা বাড়ানোর চেষ্টা করে যাচ্ছে। যাহোক রাউটার এর জন্য বিকল্প পাওয়ার সোর্স এখন বাজারে চলে এসেছে, যা আপনাকে বিদ্যুৎ না থাকলেও একটানা ৮ ঘন্টা পর্যন্ত ব্রডব্যান্ড ওয়াইফাই ইন্টারনেট কানেকশন সুবিধা দিতে পারে।

একটি Mini UPS  নিয়ে আপনার রাউটারের সাথে সেটআপ করে দিলেই আপনার কাজ শেষ। কখন ইলেক্ট্রিসিটি গেল আর কখন আসলো আপনি টেরই পাবেননা।

বিদ্যুত থাকাকালীন অবস্থায় রাউটার ডিরেক্ট সোর্স থেকেই পাওয়ার নিবে কিন্তু যখনই কারেন্ট চলে যাবে নিজে থেকেই ইউপিএসটি ব্যাকআপ সার্ভিস দেওয়া শুরু করবে।

UPS বাজার মূল্য :

ডিভাইস ক্যাপাসিটি, ব্যাকআপ, কোয়ালিটি এবং কয়টি ডিভাইসে ব্যাকআপ পাওয়া যাবে এসব বিষয়ের উপর নির্ভর করে মূল্য কম বেশি হতে পারে।

তবে ১৫০০ থেকে ২০০০ টাকায় একটি ভাল মানের ১২ ভোল্টের mini UPS পাওয়া সম্ভব, যেটি লোডশেডিং হলেও আপনাকে ৬ থেকে ১০ ঘন্টা পর্যন্ত ব্যাকআপ দিয়ে ইন্টারনেটের সাথে কানেক্টেড রাখবে।


শেষ কথা

গরমে বিদ্যুতের অধিক চাহিদা কিংবা বৈশাখের ঝড় বৃষ্টির কারণে লোডশেডিং খুবই কমন ব্যাপার। কিন্তু, তাই বলে কি ইন্টারনেট কানেকশান ( wifi ) বন্ধ থাকবে?

তাই বিদ্যুত না থাকলেও ইন্টারনেট কানেকশান ধরে রাখতে এখন কিনে ফেলুন একটি মিনি ইউপিএস।


Abdullah

বর্তমানে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃষি প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদে অধ্যয়নরত। জানার আগ্রহ থেকে whyorwhen এবং Pratiborton এ লেখালেখি করি।

0 Comments

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।