নগদ একাউন্ট বন্ধ করার নিয়ম – সেরা ২টি পদ্ধতি

নগদ একাউন্ট বন্ধ করার নিয়ম

নগদ একাউন্ট দেখার নিয়মনগদ ক্যাশ আউট চার্জ জানার পাশাপাশি নগদ একাউন্ট বন্ধ করার নিয়ম জানাও জরুরী। সাধারণত নগদ একাউন্টের বিভিন্ন সুবিধা থাকার কারণে আমাদের নগদ একাউন্ট বন্ধ করার নিয়ম জানার প্রয়োজন হয় না।

তবে এমন অনেক অবস্থা রয়েছে, যার কারণে নগদ একাউন্ট বন্ধ করা লাগতে পারে। তাই, আমাদের আজকের নগদ একাউন্ট বন্ধ করার পদ্ধতি বিষয়ক টিউটোরিয়ালটি আপনার নিশ্চিতভাবেই কাজে আসবে।

নগদ একাউন্ট বন্ধ করার নিয়ম | নগদ একাউন্ট বন্ধ করার পদ্ধতি

জনপ্রিয় Mobile ব্যাংকিং গুলোর মাঝে অন্যতম নগদ। তবে একাউন্ট খোলার প্রয়োজনীয়তা যেমন আছে, তেমনি বিভিন্ন কারণে বন্ধ করার দরকার হতেই পারে। যেমন ধরুন,

  • আপনার সিম হারিয়ে গেছে, কিংবা নষ্ট হয়ে গেছে
  • যে সিম এ নগদ একাউন্ট করা আছে সেটি আপনার ভোটার আইডি কার্ড দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করা নয়,
  • আপনি বর্তমান যে সিমে নগদ একাউন্ট আছে, তা পরিবর্তন করতে চাচ্ছেন, অথবা
  • আপনি নগদ একাউন্ট আর ব্যবহার করতেই চান না

সাধারণত এসব কারণেই নগদ একাউন্ট বন্ধ করার প্রয়োজন হয়। এছাড়াও, নগদ একাউন্ট বন্ধ করার অন্য কোন কারণও থাকতে পারে। চলুন আমাদের মূল আলোচনা অর্থাৎ নগদ একাউন্ট বন্ধ করার নিয়ম জেনে নেওয়া যাক।

Related:  নগদ একাউন্টের সুবিধা সমূহ

নগদ একাউন্ট বন্ধ করার নিয়ম

নগদ একাউন্ট বন্ধ করার নিয়ম দুইটি। প্রথমটিই অনেক সহজ পদ্ধতি এবং ঘরে বসে করা যায়। একটি হলো-

  • নগদ হেল্পলাইনে কল করে, অন্যটি
  • নগদ কাস্টমার সার্ভিস পয়েন্ট এ গিয়ে

নগদ একাউন্ট বন্ধ করতে কি কি লাগবে?

নগদ একাউন্ট বন্ধ করার জন্য প্রয়োজন হবে-

  • ন্যাশনাল আইডি কার্ড, এবং
  • একটিভ সিম

নগদ একাউন্ট বন্ধ করার আগে আপনার নগদ একাউন্ট দেখে নিন। একাউন্টে ব্যালেন্স থাকলে অন্য কোন একাউন্টে পাঠিয়ে দিন অথবা ক্যাশ আউট করে ব্যালেন্স জিরো করে ফেলুন।

নগদ একাউন্ট বন্ধ করার পদ্ধতি – ১ | ঘরে বসে নগদ একাউন্ট বন্ধ করার নিয়ম

  • ঘরে বসে নগদ একাউন্ট বন্ধ করার নিয়ম হলো নগদ হেল্পলাইন নাম্বার 16167 or 09609616167 এ কল করা। আপনার যে সিমে নগদ একাউন্ট করা আছে, ভালো হয় সেই নাম্বার দিয়ে কল করতে হবে।
  • কল করার পর কাস্টমার কেয়ার থেকে বিভিন্ন অপশন দেওয়া হবে। আপনি কাস্টমার প্রতিনিধির সাথে কথা বলতে চান, এই অপশনটি নির্বাচন করুন।
  • কাস্টমার প্রতিনিধিকে আপনার একাউন্ট বন্ধ করার বিষয়ে জানান।
  • তিনি আপনার একাউন্ট কোন নাম্বারে আছে তা জানতে চাইবে।
  • নগদ একাউন্ট যে ন্যাশনাল আইডি কার্ড দিয়ে নিবন্ধন করা তার নাম্বার জানতে চাইবে।
  • প্রয়োজন মনে করলে আপনার বাবার নাম ও মায়ের নামও জানতে চাওয়া হতে পারে।

এসব তথ্য নিয়ে একাউন্ট ভেরিফিকেশন সম্পন্ন হয়ে গেলে আপনার কাস্টমার প্রতিনিধি নগদ একাউন্টটি বন্ধ করে দিবেন।

নগদ একাউন্ট বন্ধ করার নিয়ম – ২

আপনার সিমকার্ডটি একটি সচল মোবাইলে ইনসার্ট করুন, সেইসাথে ন্যাশনাল ভোটার আইডি কার্ডের মূলকপি নিয়ে নিকটস্থ নগদ কাস্টমার সার্ভিস অফিসে যান।

একজন প্রতিনিধির সাথে কথা বলে জানান যে, একাউন্টটি বন্ধ করতে ইচ্ছুক। তিনি আপনার ভোটার আইডি কার্ডের সাথে নগদ একাউন্টের ভোটার আইডি মিলিয়ে দেখে ভেরিফাই করবেন। এরপর একাউন্টটি বন্ধ করে দেওয়া হবে।

Related:  মোবাইল ব্যাংকিং কি | Mobile Banking in Bangladesh

নগদ একাউন্ট বন্ধ করার পর আবার কি একাউন্ট খোলা যাবে?

যি অবশ্যই। আপনি একই জাতীয় পরিচয়পত্র ব্যবহার করে পুনরায় একই সিম কিংবা অন্য যেকোন সিমে নতুন করে নগদ একাউন্ট খুলতে পারবেন।

একটি ভোটার আইডি কার্ড দিয়ে কয়টি নগদ একাউন্ট খোলা যায়?

বর্তমান নিয়ম অনুযায়ী একটি ভোটার আইডি কার্ড দিয়ে শুধুমাত্র একটি নগদ একাউন্ট করতে পারবেন। তবে পাসপোর্ট, ড্রাইভিং লাইসেন্স দিয়েও নগদ একাউন্ট খোলা যায়।

নগদ একাউন্টের পাসওয়ার্ড ভুলে গেলে কি করবো?

নগদ একাউন্টের পাসওয়ার্ড ভুলে গেলে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। আপনার ন্যাশনাল আইডি কার্ড সাথে রেখে যে নাম্বারে একাউন্ট আছে, সেটি দিয়ে নগদ হেল্পলাইনে কল করুন। কাস্টমার প্রতিনিধির সাথে কথা বললে, তারা আপনার ইনফরমেশন জেনে ভেরিফাই করবে। এরপর আপনাকে একটি অন-টাইম পাসওয়ার্ড দিবে। তখন আপনি পাসওয়ার্ডটি ব্যাবহার করে ইচ্ছামতো পরিবর্তন করে নিতে পারবেন।

নগদ একাউন্ট পিন ভুলে গেলে করণীয় সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে আমাদের গাইডলাইন পড়ে নিন।

নগদ একাউন্ট সাসপেন্ড হলে করণীয়

নগদ একাউন্টে একই সময়ে বারবার ভুল পাসওয়ার্ড দিলে একাউন্টটি সাসপেন্ড করা হয়। তবে দুই ঘন্টা পর আপনি আবারো পাসওয়ার্ড দেওয়ার সুযোগ পাবেন। যদি পাসওয়ার্ড মনে না থাকে, তবে দুই ঘন্টা পর কাস্টমার হেল্পলাইনে ফোন দিয়ে পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করে নিতে হবে।

নগদ একাউন্ট বন্ধ করার নিয়ম নিয়ে শেষ কথা

নগদ একাউন্ট বন্ধ করার নিয়ম নিয়ে আশা করি আর কোনো প্রশ্ন নেই। নগদ একাউন্ট বন্ধ করার পদ্ধতি কিংবা নগদ সম্পর্কিত যেকোন প্রশ্ন থাকলে কমেন্ট করে জানিয়ে দিতে পারেন।

Leave a Comment

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।