বর্তমানে সবচেয়ে লাভজনক ব্যবসা | 10 Most Profitable Business

বর্তমানে সবচেয়ে লাভজনক ব্যবসা

ভাবছেন বর্তমানে সবচেয়ে লাভজনক ব্যবসা কোনটি! বাংলাদেশে শুরু করার মতো অনেক বিজনেস আইডিয়া আছে, যেগুলো বেশ লাভজনক হতে পারে।

বাংলাদেশ এখনো একটি কৃষিপ্রধান দেশ, তাই আপনার জন্য কৃষিভিত্তিক ব্যবসা বাংলাদেশের যেকোন প্রান্তে সম্ভাবণাময় ও অত্যন্ত লাভজনক। সাম্প্রতিক অতীতে বেশিরভাগ অর্থনৈতিক সূচকে বাংলাদেশ ব্যাপক উন্নতি করেছে। তাই, দেশে সেবা খাতও বাড়ছে। সুতরাং, বাংলাদেশে বর্তমানে বিভিন্ন ধরনের লাভজনক ব্যবসার সুযোগ রয়েছে।

আপনি যদি ব্যবসা শুরু করতে চান, তাহলে আমাদের বাছাই করা ১০টি বর্তমানে সবচেয়ে লাভজনক ব্যবসা ২০২২ দেখে নিতে পারেন।

বর্তমানে সবচেয়ে লাভজনক ব্যবসা | Most Profitable Business in Bangladesh

একনজরে দেখে নিন বর্তমানে সবচেয়ে লাভজনক ১০ ব্যবসা:

  1. অর্গানিক প্রোডাক্টস বিজনেস
  2. নার্সারি ব্যবসা
  3. ওয়ান টাইম গ্লাস, প্লেট, কাপের বিজনেস
  4. মাস্ক এবং স্যানিটাইজার
  5. ই- কমার্স ব্যবসা
  6. মোবাইল ও কম্পিউটার সার্ভিসিং
  7. ব্লগিং বিজনেস
  8. ইউটিউব চ্যানেল
  9. ফেসবুক বিজনেস
  10. অনলাইন কোর্স

১. অর্গানিক প্রোডাক্টস – বর্তমানে সবচেয়ে লাভজনক ব্যবসা

বর্তমানে ভেজালে ভরা এই বাজারে প্রত্যেকেই চায় কেমিক্যাল মুক্ত পন্য পেতে। সবাই কমবেশি স্বাস্থ্য সচেতন হচ্ছে।

এসময়ে অর্গানিক প্রডাক্টস এর চাহিদা দিনে দিনে বেড়েই চলছে। ক্ষতিকর কেমিক্যাল মুক্ত খাবারের প্রতি ঝুঁকে পড়ছে সবাই। তাই এই ভেজালের সমারোহে আপনার অর্গানিক প্রডাক্টস এর চাহিদা থাকবে আকাশচুম্বী।

আর এটি এমন একটি ব্যবসা যা আপনি খুব সহজেই এবং কম টাকায় শুরু করতে পারবেন। আপনার ঘরে, ছাদে, সামান্য খোলা জায়গায় কিংবা বারান্দায় এটি শুরু করে দিতে পারবেন।

তাহলে প্রথম দফায় আপনার ব্যবসার জন্য জায়গা নির্বাচনের সময় এবং খরচ দুটোই বেঁচে গেল।

আর বানিজ্যিকভাবেই এই বিজনেস চালানো যাবে খুব কম মূলধন দিয়েই। তাই কম টাকায় বর্তমানে সবচেয়ে লাভজনক ব্যবসা খুঁজে থাকলে আপনি শুরুটা করতে পারেন অর্গানিক প্রডাক্টস এর মাধ্যমে।

আর নতুন উদ্যোক্তারা যতই এই ব্যবসার দিকে ঝুঁকবে সাধারণ মানুষও তত স্বাস্থ্যকর খাবারের গুরুত্ব সম্পর্কে সচেতন হবেন। তাই অল্প পুঁজিতে সবচেয়ে লাভজনক ব্যবসা করতে চাইলে শুরুটা করুন অর্গানিক প্রোডাক্টস দিয়ে।

২. নার্সারি – বর্তমানে সবচেয়ে লাভজনক ব্যবসা

বর্তমানে সবচেয়ে লাভজনক ব্যবসাগুলোর মাঝে সেরা আইডিয়া হচ্ছে নার্সারি ব্যবসা। এই ব্যবসার জন্যও আপনার দরকার হবেনা আলাদা কোনো শপ। অনেক ক্ষেত্রে আলাদা কোনো মূলধনেরও প্রয়োজন নেই।

Related:  অনলাইন বিজনেস আইডিয়া : ২৮ টি সেরা ব্যবসা

নার্সারি বিজনেস আইডিয়া

কারণ শখের বসে আমরা অনেক সময়ে নিজেদের ঘরে, বারান্দায়, ছাদে বা বাড়ির সামনের খোলা জায়গায় গাছপালা, ফল ও ফুলের চাড়া লাগিয়ে থাকি।

আর এই শখের বসে করা কাজটিই হতে পারে আপনার জন্য বর্তমানে লাভজনক বিজনেস আইডিয়া। আর বাগান করতে যারা আনন্দ পান তাদের জন্য এই ব্যবসাটি হবে সবচেয়ে সহজ, লাভজনক ও সেরা ব্যবসা।

বর্তমানে শহর অঞ্চলে ঘরে সাজানো এবং ছাদ বাগান, দুই কারণেই বিভিন্ন চারা গাছের চাহিদা বাড়ছে। তাই গাছপ্রেমীরা আর দেরী না করে শুরু করে দিতে পারেন কম টাকায় সবচেয়ে লাভজনক এই ব্যবসাটি।

৩. ওয়ান টাইম গ্লাস, প্লেট, কাপের বিজনেস

শুনতে অবাক লাগলেও এটা সত্যি যে আজকাল অনেক অনুষ্ঠানে, ছোট বড় সবরকম ইভেন্টে ওয়ান টাইম প্রডাক্টস এর অনেক বেশি চাহিদা৷ তাই নিঃসন্দেহে এটি একটি যুগোপযোগী এবং লাভজনক ব্যবসা।

আর খরচের প্রসঙ্গে আসলে দেখা যাবে এর জন্যও শুরুতে আলাদা দোকানের প্রয়োজন পড়বে না। আপনার ঘরেই একটু জায়গায় শুরু করে দিতে পারবেন এই লাভজনক ব্যবসা।

অনেক ইভেন্ট, পিকনিক, জন্মদিন, বিয়ে, স্কুল,কলেজ, ভার্সিটি ফাংশনে এই ওয়ান টাইম প্রডাক্টস গুলোর প্রচুর ব্যবহার রয়েছে। সহজভাবে বলতে গেলে, ওয়ান টাইম বা একবার ব্যবহারের জন্য এইসব কাগজের থালা বাসনের জুরি নেই।

তাই বর্তমানে সবচেয়ে লাভজনক ব্যবসার তালিকায় একে রাখার অবশ্যই যুক্তিকতা রয়েছে। আপনার স্বপ্নের পথে এগিয়ে যেতে হলে কোনো ব্যবসাকে ছোট মনে না করে এগিয়ে যান।

৪. মাস্ক এবং স্যানিটাইজার

বর্তমানে এই করোনা কেড়ে নিয়েছে অনেক মানুষের প্রাণ, অনেকের জীবিকার নির্বাহের উপায়। তবে এর মধ্যেও কিছু মানুষ বুদ্ধিকে পুঁজি করে জয় করেছে এই কঠিন সময়কে।

মাস্ক স্যানিটাইজার ব্যবসা

মাস্ক এবং স্যানিটাইজার বর্তমানে বহুল ব্যবহৃত পন্য। আমাদের নিত্য দিনের সঙ্গী এখন মাস্ক এবং স্যনিটাইজার। তাই মাস্ক ও স্যানিটাইজারের ব্যবসা বর্তমানে সবচেয়ে লাভজনক ও সময়োপযোগী বিজনেস। করোনা মহামারীর এই সময়ে এর থেকে বর্তমানে সবচেয়ে লাভজনক ব্যবসা দ্বিতীয়টি নেই।

আবারও একই কথায় আসি, এর জন্য আপনার দরকার হবে না আলাদা দোকান। নিজের ছোট্ট বাসাতেই পাইকারী ও খুচরা বিক্রি শুরু করে দিতে পারেন।

পুঁজি নিয়ে একদমই ভাবতে হবে না। কারণ, ১০ হাজার টাকারও কমে এই বিজনেস শুরু করতে পারবেন।

৫. ই- কমার্স – বর্তমানে সবচেয়ে লাভজনক ব্যবসা

বর্তমানে ই-কমার্স অন্যতম জনপ্রিয়, স্মার্ট বিজনেস আইডিয়া। এর প্রধান কারন সাধারণ জীবন ধারায় আধুনিকতার ছোঁয়া।

এছাড়াও দিন দিন মানুষের ব্যস্ততাও বাড়ছে প্রচুর। এসময়ে অনেকই অনলাইন শপিং এর দিকে ব্যপক ভাবে ঝুঁকে পড়েছেন। হাতে থাকা মোবাইল বা কম্পিউটার দিয়ে ঘরে বসেই পেয়ে যেতে চান নিজের পছন্দের পন্যটি।

এ ব্যবসাটি অল্প টাকায় লাভজনক বিজনেস আইডিয়ার তালিকায় চলে আসার অন্যতম কারন এর জন্য আপনার কোনো দোকানের প্রয়োজন হবে না।

তাই প্রাথমিক ভাবেই আপনার অনেকটা টাকা বেঁচে গেল। এ ব্যবসায় অন্যতম সুবিধা হচ্ছে আপনি যেকোনো পন্য (এক বা একাধিক) নিয়ে শুরু করে দিতে পারেন আপনার ব্যবসা।

Related:  মহিলাদের জন্য ঘরে বসে ব্যবসা | 10 Best Business for women

অনলাইনে অনেক কম টাকায় লাভজনক বিজনেস করা সম্ভব। তেমন কিছু ই কমার্স ব্যবসা হল:

  • কাপড়ের ব্যবসা
  • কসমেটিকস
  • ঘড়ি
  • জুয়েলারি
  • হ্যান্ড মেইড প্রডাক্ট
  • আচার
  • হোম মেইড ফুড ইত্যাদি।

৬. মোবাইল ও কম্পিউটার সার্ভিসিং বিজনেস

বর্তমানে আবাল-বৃদ্ধ-বনিতা সকলের হাতে হাতে মোবাইল। আধুনিক এ যুগে মোবাইল আর কম্পিউটার আমাদের জীবনের অপরিহার্য অংশ হয়ে উঠেছে।

আর মেবাইলে এবং কম্পিউটার নিয়ে হরহামেশাই লোকজন নানা রকম সমস্যায় পড়ে থাকে। এসব সমস্যা সমাধানের জন্য সার্ভিসের প্রয়োজন পরে। প্রতিনিয়তই দৌড়াতে হয় মোবাইল সার্ভিসিং এর দোকানে।

তাই এই ব্যবসাটি হতে পারে একটি সময়োপযোগী ব্যবসা। যেখানে খুব অল্প জায়গায় ও কম টাকায় আপনি শুরু করতে পারেন আপনার জীবনের প্রথম ব্যবসা।

গ্রামে ব্যবসার আইডিয়াগুলোর মাঝে এটি অনেক লাভজনক বিজনেস আইডিয়া হতে পারে। কারণ গ্রামে এধরনের সার্ভিস এখনো অনেক কম।

তবে এ কাজটির জন্য সবচেয়ে জরুরি হচ্ছে দক্ষতা। ব্যবসা শুরু করলেই হবে না। একে লাভজনক করতে অবশ্যই পর্যাপ্ত দক্ষতা প্রয়োজন। অন্যথায় আপনার ব্যবসা শুরু করার আগেই ধ্বস নেমে আসবে।

তাই আপনার যদি এ বিষয়ে পারদর্শিতা থাকে তাহলে এটি হবে আপনার জন্য অত্যন্ত লাভজনক একটি ব্যবসা। আর পারদর্শিতা না থাকলেও এ আপনি এ বিষয়ে বিশেষ দক্ষতা অর্জনের চেষ্টা করুন।

৭. ব্লগিং – সবচেয়ে লাভজনক স্মার্ট ব্যবসা

আরেকটি সময়োপযোগী ব্যবসার আইডিয়া হচ্ছে ব্লগিং বিজনেস। ইন্টারনেটে নিজের মত প্রকাশ, বিভিন্ন রকমের তথ্য শেয়ার করা ও বাস্তব জীবন নিয়ে আালাপ আলোচনা করার অন্যতম একটি জনপ্রিয় মাধ্যম হচ্ছে ব্লগিং।

ব্লগিং বিজনেস

বর্তমানে ব্লগিং করে ইনকামের চাহিদা অনেক বেশি বৃদ্ধি পাচ্ছে। যেকোনো পেশা, শ্রেনীর মানুষ, যেকোনো জায়গায় বসে শুরু করতে পারে এই বিজনেস।

দিনে কেবল দুই থেকে তিন ঘন্টা সময় দিয়েই আপনি শুরু খুবই লাভবান হতে পারবেন।

তবে ব্লগিং করা সম্পূর্ণ নির্ভর করে আপনার নিজস্ব আগ্রহ আর দক্ষতার উপর। আপনার ব্লগিং বিষয়ে আগ্রহ থাকলে এখনই দক্ষতা অর্জন করুন এবং নিজস্ব ব্লগিং বিজনেস শুরু করে দিন।

কোনো খরচ ছাড়াই কিংবা মাত্র ৫ হাজার টাকায় একটি সুন্দর ও প্রফেশনাল ব্লগ বানিয়ে নিতে পারেন।

৮. ইউটিউব চ্যানেল – বর্তমানে সবচেয়ে লাভজনক ব্যবসা

নিজের একটি ইউটিউব চ্যানেল খুলে এবং মানসম্মত কন্টেন্ট এর ভিডিও আপলোড করে আয় করতে পারেন মোটা অংকের টাকা। এর জন্য আপনাকে খুলতে হবে একটি ইউটিউব চ্যানেল যেটি সম্পূর্ণ ফ্রী।

তাহলে বুঝতেই পারছেন কম টাকায় ব্যবসা শুরু করতে চাইলে ইউটিউব চ্যানেল নিঃসন্দেহে একটি ভাল আইডিয়া।

তবে মানসম্মত কন্টেন্টের অভাবে আপনার ইউটিউব সাবস্ক্রাইবার বৃদ্ধি করা সম্ভব হয়না, ফলাফলস্বরূপ আয়ের আশা নিমিষেই ভেস্তে যেতে পারে। এজন্য ইউটিউব বিজনেস শুরু করার আগে আপনাকে অবশ্যই দক্ষ হতে হবে।

পাশাপাশি দিন দিন ভিডিওর মান উন্নত ও সময়োপযোগী করতে হবে যাতে বেশি বেশি ভিউ পাওয়া যায়।

Related:  পাইকারি ব্যবসার আইডিয়া ; ১০ টি লাভজনক পাইকারি ব্যবসা

এছাড়া, আপনার ভিডিও গুলোর প্রচারণা অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চালাতে হবে। কারণ, ইউটউব চ্যানেলে ভিউ বৃদ্ধি পেলে আয়ও বাড়বে।

আপনার ভিডিও দেখার দরুন এডস গুলোয় যত ভিউ পরবে সেই হারে আপনার ইনকামও বাড়বে।

তাই কম টাকায় বর্তমানে সবচেয়ে লাভজনক ব্যবসা শুরু করতে চাইলে আজই একটি ইউটিউব চ্যানেল খুলে ফেলুন এবং মানসম্মত কন্টেন্ট এর ভিডিও আপলোড করুন৷

৯. ফেসবুক বিজনেস

সারাদিন ঠিক কতটা সময় আপনি ফেসবুকে ব্যয় করেন বলতে পারবেন? আপনি কি জানেন ফেসবুক থেকে আয় করার কতগুলো উপায় আছে?

আর নয় ফেসবুকে সময় নষ্ট। ফেসবুকে থাকা প্রতিটি সময় কাজে লাগাতে চাইলে আজই খুলে ফেলুন একটি ফেসবুক পেজ।

এটি হতে পারে যেকোনো বিষয় এর উপরে। সামাজিক অবস্থা, ফানি টপিক, রিয়্যাক্ট ভিডিও কিংবা মজার মজার মিমস শেয়ার করে পেতে পারেন হাজার হাজার লাইক এবং ভিউ ।

আর ফেসবুকে আপলোড করা ভিডিও অবশ্য মানসম্মত হতে হবে। নয়ত খুব অল্প সময়েই ঝরে পরবে আপনার বিজনেস।

ফেসবুক পেজ থেকে আয় করতে চাইলে বেশি বেশি সময়োপযোগী কন্টেন্ট তৈরী করুন। ঘরে বসে, কোনো বিনিয়োগ ছাড়াই ব্যবসা করতে চাইলে এই ব্যবসার জুরি নেই।

১০. অনলাইন কোর্স –  স্মার্ট বিজনেস আইডিয়া

আপনার কি কোনো বিষয়ে বিশেষ পারদর্শিতা আছে? যেটি আপনি সবার মধ্যে শেয়ার করতে চান? সবাইকে শেখার সুযোগ করে দিতে চান?

কম টাকায় বিজনেস

তাহলে আপনার এই পারদর্শিতাকেই আপনার জন্য আরেকটি সফল বিজনেস হিসেবে দাড় করিয়ে নিন। করোনা মহামারীতে অনলাইন ক্লাস কিংবা কোর্স গুলো অনেক বেশি জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।

সরাসরি কোর্স করার থেকে মানুষ এখন ঘরে বসেই অনলাইনের মাধ্যমে ক্লাস করতে বেশি আগ্রহী। আর আপনাকে এই সুযোগ কেই কাজে লাগাতে হবে এবং আপনি যে বিষয়ে দক্ষ সে বিষয়ে অনলাইন কোর্স চালু করে দিতে পারেন।

আজকাল বিভিন্ন মাধ্যমে অনলাইনে ঘরে বসে ক্লাস নেওয়ার সুবিধা রয়েছে। তাই আর দেরি না করে শুরু করে দিন আপনার নিজস্ব অনলাইন কোর্স।  বর্তমানে এই লাভজনক ব্যবসা শুরু করতে চাইলে যতটা না টাকার প্রয়োজন তার চেয়ে বেশি প্রয়োজন বুদ্ধির।

বর্তমানে সবচেয়ে লাভজনক ব্যবসা নিয়ে শেষ কথা

কম টাকায় ব্যবসা শুরু করতে আতঙ্কিত হবেন না। আপনার পিছিয়ে পড়ার কারণে হয়ত এই প্রতিযোগিতার যুগে অনেকেই এগিয়ে যাবে।

এজন্য, বসে বসে সময় নষ্ট না করে নিজের বুদ্ধিকে কাজে লাগিয়ে শুরু করে দিন আপনার স্বপ্নের বিজনেস৷ আশা করি, উপরে উল্লেখ করা বর্তমানে সবচেয়ে লাভজনক ব্যবসা আইডিয়াগুলো আপনার ব্যবসা শুরু করার কাজে কোন না কোনভাবে কাজে লাগবে।

আপনি যদি আরো কিছু বর্তমানে লাভজনক অনলাইন ব্যবসার খোঁজ করে থাকেন, তবে সেরা ২৮ টি স্মার্ট অনলাইন বিজনেস আইডিয়া দেখে নিন।

Leave a Comment

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।