ই পাসপোর্ট ফি কত ২০২২ | E Passport Fee BD

ই পাসপোর্ট ফি কত ২০২২

বর্তমানে দেশের প্রায় সকল আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসে ই পাসপোর্ট আবেদন নেওয়া শুরু হয়েছে। ই পাসপোর্ট আবেদন করার সময় ই পাসপোর্ট ফি কত ২০২২ তা নির্ভর করছে ৫ বছর নাকি ১০ বছর মেয়াদি ই পাসপোর্ট নিবেন। তাছাড়া, ৪৮ পৃষ্ঠা ও ৬৪ পৃষ্ঠার ই পাসপোর্ট ফি কম বেশি হবে।

এছাড়া, ই পাসপোর্ট ফি কত হবে তা নির্ভর করছে আপনি দেশের ভিতর থেকে আবেদন করছেন, নাকি বাংলাদেশের বাইরে কোন মিশন বা দূতাবাসে গিয়ে আবেদন করছেন। সেইসাথে আপনার আবেদন টাইপ (রেগুলার, এক্সপ্রেস, বা সুপার এক্সপ্রেস) এর উপরও নির্ভর করবে ই পাসপোর্ট ফি ২০২২ এ কত টাকা হবে।

বিশ্বে ১১৯তম দেশ হিসেবে বাংলাদেশ ই-পাসপোর্ট চালু করে। তাই, ৫ বছর,  ১০ বছর মেয়াদি পাসপোর্ট করতে কত টাকা লাগে সেসম্পর্কে জানিনা।  না জানার কারণে অনেক সময় দালালের ফাঁদে পা দিয়ে অতিরিক্ত খরচ করে ফেলেন।

তাই আমরা আজ সাধারণ, জরুরীসহ সকল প্রকার ই পাসপোর্ট ফি কত ২০২২, এবং সেইসাথে ই পাসপোর্ট ফি জমা দেওয়ার উপায় ও কোন কোন ব্যাংকে ই পাসপোর্ট ফি জমা দেওয়া যায়, সেসব বিষয়ে জেনে নিবো।

ই পাসপোর্ট ফি কত ২০২২ | e Passport Fee in Bangladesh

অনলাইনে ই পাসপোর্টের জন্য আবেদন সাবমিট করার পর ই-পাসপোর্ট ফি জমা দিতে হয়। তারপর, আবেদন ফরম ও পেমেন্ট রশিদ নিয়ে আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসে যেতে হবে। ই পাসপোর্ট ফি কত হবে তা নির্ভর করছে আপনি কত দিনের মধ্যে ই পাসপোর্ট হাতে পেতে চান এবং কত পাতার পাসপোর্ট নিবেন।

১। নিয়মিত ডেলিভারি: বায়োমেট্রিক তালিকাভুক্তির তারিখ থেকে 15 কার্যদিবস / 21 দিনের মধ্যে।

২। এক্সপ্রেস ডেলিভারি: জরুরী ভিত্তিতে পাসপোর্ট ডেলিভারি। বায়োমেট্রিক তালিকাভুক্তির তারিখ থেকে 7 কার্যদিবস / 10 দিনের মধ্যে।

৩। সুপার এক্সপ্রেস ডেলিভারি: অতি জরুরী পাসপোর্ট আবেদনের ক্ষেত্রে বায়োমেট্রিক তালিকাভুক্তির তারিখ থেকে 2 কার্যদিবসের মধ্যে।

Related:  ই পাসপোর্ট আবেদন বাতিল ও সংশোধন করার নিয়ম

সরকারি কর্মচারী যাদের এনওসি অথবা অবসরপ্রাপ্ত ডকুমেন্ট (পিআরএল) আছে তারা নিয়মিত ডেলিভারি ফিতে এক্সপ্রেস সুবিধা পাবেন।

বাংলাদেশের অভ্যন্তরে ই পাসপোর্ট ফি

পৃষ্ঠা, মেয়াদ এবং ডেলিভারি ধরনের উপর নির্ভর করে ই পাসপোর্ট ফি কত দেখে নিন।

একনজরে ৫ বছর মেয়াদি ই পাসপোর্ট ফি

৫ বছর মেয়াদি ই পাসপোর্ট ফি

ডেলিভারি

৪৮ পাতা ই পাসপোর্ট ফি

৬৪ পাতা ই পাসপোর্ট ফি

রেগুলার

4,025 টাকা

6,325 টাকা

এক্সপ্রেস/জরুরী

6,325 টাকা

8,625 টাকা

সুপার এক্সপ্রেস

8,625 টাকা

12,075 টাকা

একনজরে ১০ বছর মেয়াদি ই পাসপোর্ট ফি

৫ বছর মেয়াদি ই পাসপোর্ট ফি

ডেলিভারি

৪৮ পাতা ই পাসপোর্ট ফি

৬৪ পাতা ই পাসপোর্ট ফি

রেগুলার

5,750 টাকা

8,050 টাকা

এক্সপ্রেস/জরুরী

8,050 টাকা

10,350 টাকা

সুপার এক্সপ্রেস

10,350 টাকা

13,800 টাকা

বাংলাদেশ দূতাবাসে সাধারণ আবেদনকারীদের জন্য ই-পাসপোর্ট ফি

১।48 পৃষ্ঠা এবং ৫ বছর মেয়াদি ই পাসপোর্ট ফি 

  • নিয়মিত ডেলিভারি: 100 ডলার
  • এক্সপ্রেস ডেলিভারি: 150 ডলার

২। 48 পৃষ্ঠা এবং ১০ বছর মেয়াদি ই পাসপোর্ট ফি 

  • নিয়মিত ডেলিভারি: 125 ডলার
  • এক্সপ্রেস ডেলিভারি: 175 ডলার

৩। 64 পৃষ্ঠা এবং ৫ বছর মেয়াদি ই পাসপোর্ট ফি 

  • নিয়মিত ডেলিভারি: 150 ডলার
  • এক্সপ্রেস ডেলিভারি: 200 ডলার

৪। 64 পৃষ্ঠা এবং ১০ বছর মেয়াদি ই পাসপোর্ট ফি 

  • নিয়মিত ডেলিভারি: 175 ডলার
  • এক্সপ্রেস ডেলিভারি: 225 ডলার

বাংলাদেশ দূতাবাসে শ্রমিক ও ছাত্রদের জন্য ই পাসপোর্ট ফি

১। 48 পৃষ্ঠা এবং 5 বছরের মেয়াসি ই-পাসপোর্ট ফি

  • নিয়মিত ডেলিভারি: 30 ডলার
  • এক্সপ্রেস ডেলিভারি: 45 ডলার

২। 48 পৃষ্ঠা এবং 10 বছরের মেয়াদি ই-পাসপোর্ট ফি

  • নিয়মিত ডেলিভারি: 50 ডলার
  • এক্সপ্রেস ডেলিভারি: 75 ডলার

৩। 64 পৃষ্ঠা এবং 5 বছর মেয়াদের ই-পাসপোর্টের ফি

  • নিয়মিত ডেলিভারি: 150 ডলার
  • এক্সপ্রেস ডেলিভারি: 200 ডলার
Related:  ই পাসপোর্ট পুলিশ ভেরিফিকেশন - এ টু জেড জেনে নিন

৪। 64 পৃষ্ঠা এবং 10 বছরের মেয়াদের ই-পাসপোর্ট ফি

  • নিয়মিত ডেলিভারি: 175 ডলার
  • এক্সপ্রেস ডেলিভারি: 225 ডলার

ই পাসপোর্ট ফি’র সাথে ১৫% ভ্যাট দিতে হয়। এখানে সকল হিসাবে ভ্যাট অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। সুতরাং, ই পাসপোর্ট করার সর্বমোট খরচ উপরে উল্লেখিত পরিমাণের বেশি নয়।

ই পাসপোর্ট ফি জমা দেওয়ার নিয়ম

ই-পাসপোর্ট ফি দুই উপায়ে প্রদান করতে পারবেন; অফলাইন তথা ব্যাংক এ গিয়ে, এবং অনলাইন তথা ঘরে বসে।

অনলাইন ই পাসপোর্ট এর ফি জমা দেওয়ার উপায়:

(ক) ডেবিট কার্ড/ক্রেডিট কার্ড (মাস্টার কার্ড, ভিসা কার্ড, আমেরিকান এক্সপ্রেস, ডিবিবিএল নেক্সাস)

(খ) মোবাইল ব্যাংকিং (নগদ, বিকাশ, রকেট, ওকে ওয়ালেটস, ইউপে)

(গ) ইন্টারনেট ব্যাংকিং (ব্যাংক এশিয়া)

(ঘ) ওয়ালেট (Dmoney, UPay)

অফলাইন বা ব্যাংকে ই পাসপোর্ট ফি জমা দেওয়ার উপায়:

ব্যাংক চালানের মাধ্যমে যেকোনো সরকারি বা বেসরকারি ব্যাংকে পরিশোধ করা যেতে পারে। বর্তমানে ৬ টি ব্যাংকে পাসপোর্ট ফি জমা দেওয়া যাচ্ছে। ব্যাংকগুলো হলো;

  1. সোনালী ব্যাংক
  2. ঢাকা ব্যাংক
  3. ব্যাংক এশিয়া
  4. প্রিমিয়ার ব্যাংক
  5. ওয়ান ব্যাংক ও
  6. ট্রাস্ট ব্যাংক

ই পাসপোর্ট ফি কত ২০২২ নিয়ে শেষ কথা

আশাকরি, আর্টিকেলটি ই পাসপোর্ট ফি কত ২০২২ এবং পাসপোর্ট আবেদনের ফি জমা দেওয়ার উপায় সম্পর্কে আপনার সকল প্রশ্নের উত্তর দিতে পেরেছে। আপনার মনে এখনো পাসপোর্ট সম্পর্কিত কোনো প্রশ্ন থেকে থাকলে কমেন্ট করে জানাতে পারেন।

2 thoughts on “ই পাসপোর্ট ফি কত ২০২২ | E Passport Fee BD”

Leave a Comment

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।