Youtube থেকে টাকা তুলব কিভাবে? [স্টেপ বাই স্টেপ]

ইউটিউব থেকে টাকা তোলার উপায়

আপনার কি একটি ব্লগ বা ইউটিউব চ্যানেল আছে? যেখানে কিনা অ্যাডসেন্স এর মাধ্যমে ইনকাম শুরু হয়েছে! আপনি কি Youtube থেকে টাকা তুলব কিভাবে এই প্রশ্নের উত্তর খুঁজছেন!

ইউটিউব থেকে টাকা তুলব কিভাবে এটা নিয়ে চিন্তিত হওয়ার তেমন কোন কারণ নেই। আপনার মতো আরো হাজার হাজার ব্লগার, ইউটিউবার ব্লগ ও Youtube থেকে ইনকাম করে টাকা তুলছেন।

ব্লগ এবং ইউটিউব চ্যানেলের টাকা মূলত এডসেন্স একাউন্টে যুক্ত হতে থাকে, এবং নির্দিষ্ট পরিমাণ ইনকাম হওয়ার পর নিজস্ব ব্যাংক একাউন্টে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। তাই, টাকা উইথড্র করার জন্য আমাদের একটি ব্যাংক একাউন্ট দরকার হবে।

আমাদের আজকের আর্টিকেলের মাধ্যমে Youtube তথা অ্যাডসেন্স থেকে কিভাবে টাকা তোলা যায় সেবিষয়ে বিস্তারিত জেনে নিবো।

Youtube থেকে টাকা তুলব কিভাবে?

প্রথমত আপনাকে নিশ্চিত হতে হবে যে আপনার ইউটিউব চ্যানেল কোন মাধ্যমে ইনকাম করছে? আপনি যদি অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কিংবা লোকাল বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে ইনকাম করেন, তাহলে এই পদ্ধতিটি আপনার জন্য নয়। কিন্তু যদি ইউটিউব মনিটাইজেশন প্রোগ্রাম বা অ্যাডসেন্সে যুক্ত হয়ে থাকেন এবং ইনকাম শুরু হয় তবে আপনি পরবর্তী ধাপে চলে আসতে পারেন।

ইউটিউব থেকে সফলভাবে টাকা তোলার জন্য আপনার এড্রেস ভেরিফেকেশন এবং সঠিকভাবে ব্যাংক একাউন্ট যোগ করা জরুরী। চলুন Youtube থেকে কিভাবে টাকা তুলব তার ধাপগুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক-

১। এড্রেস ভেরিফিকেশন

গুগল এডসেন্স এ 10 ডলার জমা হওয়ার পর আপনাকে একটি পিন কোড পাঠানো হবে। এই কোডটি আপনার এড্রেস ভেরিফিকেশনের জন্য পাঠানো হয়।

গুগল মেইল করে জানানোর ২-৩ সপ্তাহর মাঝেই হাতে পাওয়ার কথা, তবে ১২০ দিন পর্যন্ত এই কোডটি ভ্যালিড থাকবে। না আসলে আরেকবার পাঠানোর অনুরোধ করতে পারবেন।

তবে একাউন্ট করার সময় সঠিকভাবে এড্রেস যুক্ত করলে ১৫ দিনের মাঝেই ভেরিফিকেশন কোড আপনার পোস্ট অফিসে চলে আসার কথা।

গুগল এডসেন্স এ লগইন করে ভেরিফিকেশন করার জন্য একটি নোটিফিকেশন পাবেন, সেখানে ক্লিক করে, অথবা এড্রেস মেন্যুতে ক্লিক করে কোডটি বসিয়ে আপনার এড্রেস ভেরিফাই করে নিন।

২। ব্যাংক একাউন্ট খুলুন

আপনার গুগল এডসেন্স একাউন্টে যে নাম দেওয়া রয়েছে তা পুনরায় চেক করুন, অবশ্যই ন্যাশনাল আইডি কার্ডের সাথে মিল রাখবেন। না থাকলে এডিট করে নাম পরিবর্তন করুন।

এবার নির্দিষ্ট কোনো ব্যাংকে গিয়ে একাউন্ট করে ফেলুন। নামের ক্ষেত্রে সাবধানতা অবলম্বন করুন, যেন এডসেন্সে ব্যবহার করা নাম এবং ব্যাংক একাউন্ট নাম একই থাকে। কিছু টাকা ডিপোজিট করে ব্যাংক একাউন্টটি সচল করে নিন।

বর্তমানে অনেক ব্যাংক অনলাইনে একাউন্ট করার সুযোগ দিচ্ছে। যেমন: ইসলামী ব্যাংকের সেলফিন অ্যাপ দিয়ে ইসলামী ব্যাংক একাউন্ট করতে পারবেন। একাউন্ট তৈরি করার পর ব্যাংকে গিয়ে টাকা ডিপোজিট করে চেক অথবা এটিএম কার্ড অর্ডার করুন।

যদি আপনার আগে থেকেই ব্যাংক একাউন্ট করা থাকে, তবে এডসেন্স নামটি  চেক করুন, দেখুন ব্যাংক একাউন্ট নামের সাথে মিল আছে কি না। না থাকলে এডসেন্স একাউন্টের নাম পরিবর্তন করে নিন।

৩। এডসেন্স এ ব্যাংক একাউন্ট যুক্ত করুন

  • এবার আপনার ইউটিউব চ্যানেল যুক্ত থাকা এডসেন্স একাউন্টে লগইন করুন।
  • পেমেন্ট অপশন এ ক্লিক করে add payment method সিলেক্ট করুন।

Youtube থেকে টাকা তুলব কিভাবে

এবার আপনার ব্যাংক ডিটেইলস এড করতে হবে। ব্যাংক ডিটেইলস এর একটা পর্যায়ে গিয়ে SWIFT Code এড করতে হবে।

সুইফট কোড মানে হলো কোন এক ব্যাংক ব্রাঞ্চ কোড Id, যা ইন্টারন্যাশনাল মানি লেনদেনের সময় প্রয়োজন হয়ে থাকে।

আপনার যে ব্যাংকে একাউন্ট আছে, সেই ব্যাংকের swift code লিখে সার্চ করুন। যেমন: swift codes of Islami bank limited. এখানে সকল শাখার সুইফট কোড পেয়ে যাবেন। আপনার নিকটবর্তী ব্যাংক শাখার সুইফট কোডটি কপি করে সুইফট কোডের জায়গায় paste করুন।ব্যাংক সুইফট কোড

ব্যাস! আপনার ব্যাংক একাউন্টটি সাকসেসফুললি এড হয়ে গেলো। এবার আপনার মিনিমাম উইথড্র এমাউন্ট ইনকাম হলেই নির্দিষ্ট ব্যাংক একাউন্টে টাকা চলে আসবে।

কত ডলার হলে Youtube থেকে টাকা তোলা যায়?

গুগল এডসেন্স এ সর্বনিম্ন ১০০ ডলার জমা হলে টাকা উইথড্র করতে পারবেন। তবে আপনি যদি আরো বেশি টাকা হওয়ার পর ব্যাংক ট্রান্সফার করতে চান, তাহলে পেমেন্ট সেটিংস থেকে মিনিমান ক্যাশ উইথড্র এমাউন্ট বাড়িয়ে দেওয়া যাবে।

ইউটিউব চ্যানেল এবং ব্লগ কি একই এডসেন্স এ যুক্ত করা যায়?

যি, ইউটিউব এডসেন্স এর সাথে ব্লগ সাইট যুক্ত করতে পারবেন, তবে এজন্য আপনার এডসেন্স একাউন্টটি আপগ্রেড ফর কন্টেন্ট করে নিতে হবে।

অন্যদিকে একটি ব্লগসাইটের জন্য ওপেন করা এডসেন্সে ১০০ টি ব্লগের পাশাপাশি ইউটিউব চ্যানেলও যুক্ত করতে পারবেন, এবং এখানে আপগ্রেড করার কোনো প্রয়োজন নেই।

ইউটিউব থেকে টাকা তোলার কত উপায় রয়েছে?

ইউটিউব থেকে ২টি উপায়ে টাকা উঠাতে পারবেন।

  1. ওয়্যার ট্রান্সফার
  2. চেক

ওয়্যার ট্রান্সফার করলে তারা আপনার ব্যাংক একাউন্টে ডলার পাঠাবে, এবং ব্যাংক কর্তৃপক্ষ তা টাকায় কনভার্ট করে আপনার একাউন্টে ডিপোজিট করে দিবে।

অন্যদিকে, চেক সিস্টেমে অ্যাডসেন্স থেকে টাকা তুলতে চাইলে আপনার অ্যাড্রেস ভেরিফিকেশন কোডের মতো করে প্রতিবার মাসের ২১ তারিখে আপনার ঠিকানায় চেক পাঠানো হবে। পরবর্তীতে আপনি চেকটি ব্যাংকে গিয়ে জমা দিলে একাউন্টে টাকা ডিপোজিট করতে পারবেন অথবা টাকা উঠাতে পারবেন।

Youtube থেকে কত তারিখ টাকা পাঠায়?

Youtube নয়, বরং এডসেন্স একাউন্ট থেকে টাকা আসবে। প্রতি মাসের ২১ তারিখ গুগল এডসেন্স আপনার ব্যাংক একাউন্টে টাকা সেন্ড করবে। তবে এজন্য আপনার ব্যালেন্স ১০০ ডলারের উপর থাকতে হবে।

২৫-২৬ তারিখের মাঝে আপনার ব্যাংক একাউন্টে চলে আসবে, কোন ব্যাংকে আপনার একাউন্ট তার উপর নির্ভর করবে। তবে প্রথমবার অনেকের ব্যাংক একাউন্টে টাকা ডিপোজিট হয় না। এর কারণ, অনেক ব্যাংকেই সুফট কোড নিয়মিত চেক করা হয় না।

এজন্য আপনার নিকটস্থ ব্যাংক শাখার ফরেইন এক্সচেঞ্জ ডিপার্টমেন্টে গিয়ে কথা বলতে হবে। তাদেরকে অবশ্যই সুইফট কোড চেক করার কথা বলবেন। যাওয়ার সময় আপনার পেমেন্ট রিসিপ্ট প্রিন্ট করে নিয়ে যেতে ভুলবেন না যেন।

Youtube থেকে টাকা তোলার জন্য কোন ব্যাংক ভালো হবে?

প্রথমত, ব্যাংক লেনদেন আমার নিজের কাছে খুব একটা পছন্দ না, কারণ এখানে সুদের ব্যপার রয়েছে। তবে যেহেতু আমাদের কাছে বিকল্প নেই, সেকারণে ইসলামী ব্যাংক আমি প্রেফার করি। কারণ, তারা নিজেরা বলছে যে ইসলামী শরিয়াহ ভিত্তিতে কাজ করছে। সুতরাং, কিছুটা দায়মুক্তির সুযোগ রয়েছে।

দ্বিতীয় কারণ হলো, ইসলামী ব্যাংক অন্যান্য ব্যাংকের তুলনায় ডলার রেট বেশি দেয়।

তৃতীয় কারণ হলো, ইসলামী ব্যাংক তুলনামূলক দ্রুত ডলার এক্সচেঞ্জ করে টাকা ডিপোজিট করে দেয়। অন্যান্য ব্যাংকে টাকা পেতে যেখানে ২৮-২৯ তারিখ লেগে যায়, ইসলামী ব্যাংক সেখানে ২৪-২৬ তারিখের মাঝেই টাকা ডিপোজিট করে।

আমি ইসলামী ব্যাংকের প্রমোশন করছি না, আপনি আপনার পছন্দ এবং নিকটবর্তী ব্যাংক কোনটি সেসব চিন্তা করে একাউন্ট করুন।

ইউটিউব থেকে টাকা তোলার উপায় নিয়ে শেষ কথা

আমরা আজকের আর্টিকেলের মাধ্যমে Youtube থেকে কিভাবে টাকা তুলব তা জেনে নিলাম। তবে আপনাকে কিছু বিষয়ে সাবধান হতে হবে:

  • দেশ পরিবর্তন করা যায় না, তাই এখনি ডাবল চেক করুন।
  • এডসেন্স এড্রেস ঠিক আছে কিনা চেক করুন।
  • ব্যাংক একাউন্ট এড করার সময় একাউন্ট নাম্বার এবং সুইফট কোড সঠিকভাবে দিন। প্রয়োজনে ডাবল চেক করুন।
  • ১ম বার পেমেন্ট মেইল পাওয়ার ৫ কর্ম দিবসের মাঝে আপনার ব্যাংক একাউন্টে টাকা জমা না হলে নিকটস্থ ব্যাংক শাখায় যোগাযোগ করুন।

Youtube থেকে কিভাবে টাকা তুলব, বিষয়ে আপনার যদি আর কোন থাকে তবে কমেন্ট করে জানাতে ভুলবেন না যেন।

Leave a Comment

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

error: Content is protected !!