টুইটার থেকে আয় করার দারুণ কিছু উপায় – ২০২১

twitter থেকে আয়

টুইটার থেকে আয় করার কথা শুনে আকাশ থেকে পরলেন নাকি? হা হা, এতো অবাক হওয়ার কিছু নেই। টুইটার থেকে সত্যিই আয় করা যায়। আপনি হয়তো ইতোমধ্যেইফেসবুক, ইনস্টগ্রামটেলিগ্রামের মতো সোস্যাল মিডিয়াগুলো থেকে ইনকাম করার অনেক উপায় জেনে গেছেন। কিন্তু টুইটার থেকেও যে ইনকাম করা যায় এ বিষয়ে অনেকেরই ধারণা নেই।

টুইটার বর্তমানে খুবই জনপ্রিয় এবং বহুল ব্যবহৃত একটি সোস্যাল মিডিয়া।  কেউ কেউ এটিকে তাদের ব্যবসার কাজে,  নিজের পণ্যকে প্রমোট করতে, যোগাযোগ বৃদ্ধি ইত্যাদি বিভিন্ন কাজে ব্যবহার করছেন প্রতিনিয়ত। 

বাংলাদেশের অনেকেই টুইটার থেকে আয়ের বিষয়ে অবগত নন। কিন্তু যারা এ সম্পর্কে জানেন তারা ঘরে বসে প্রতিনিয়ত ইসকাম করছেন লাখ লাখ টাকা।

টুইটার থেকে ইনকাম করা খুব একটা কঠিন কাজ নয়। যেকেউ, হ্যাঁ যেকেউ চাইলেই কিছু নিয়ম অনুসরণ করে ঘরে বসেই আয় করতে পারবে এই টুইটার দিয়ে।

টুইটার থেকে আয় করার উপায়

আপনিও যদি টুইটারের মাধ্যমে টাকা আয় করার কথা ভেবে থাকেন, তবে এই আর্টিকেলটি আপনার জন্যই। এখানে টুইটার থেকে ইনকাম করার যাবতীয় নিয়ম আমরা  তুলে ধরার চেষ্টা করবো। তাহলে চলুন দেরি না করে জেনে নেয়া যাক এ সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে।

টুইটার কী? ( What Is Twitter In Bangla )

Twitter  থেকে ইনকাম করার উপায় জেনে নেয়ার পূর্বে  টুইটার কী? এ সম্পর্কে জেনে নেয়া যাক।

TWITTER এর পূর্ণরূপ হচ্ছে  ” Typing What I’m Thinking That Everyone’s Reading”. twitter দিয়ে আয়

টুইটার হচ্ছে এমন একটি Online social media website  যার মাধ্যমে মানুষ Online message,  short stories, information  অন্যদের সাথে Share  করে থাকে। তবে  post এর মাধ্যমে ও অন্যদের সাথে share করা যায় যা ” Tweets ” হিসেবে পরিচিত। 

তবে একটি Tweet ১৪০ শব্দের বেশি হতে পারবে না। পরবর্তীতে  ২০১৭ সালে  “non-Asian language ” এর ক্ষেত্রে এটিকে ২৮০ শব্দের মধ্যে করা হয়েছে।

টুইটার হচ্ছে মূলত  একটি social media platform  যার মাধ্যমে খুব কম শব্দের মধ্যে নিজের মনের ভাব প্রকাশ করতে হয়।

অভিনেতা – অভিনেত্রী,  রাজনৈতিক নেতা, সামাজিক কর্মী  এবং জনপ্রিয় লোকেরা এই টুইটার বেশি use করে থাকেন।

বিভিন্ন বায়ার, ছোট – বড় বিভিন্ন ব্যবসায়ী এই টুইটারকে ব্যবহার করছেন বিভিন্ন কাজে।

Twitter থেকে ইনকাম করার পূর্ব প্রস্তুতি

টুইটার থেকে আয় করার পূর্বে আপনাকে অবশ্যই কিছু কাজ সম্পন্ন করে নিতে হবে। মনে রাখবেন এই কাজগুলো যতো ভালোভাবে করবেন আপনার ফলোয়ার সংখ্যা ততো বাড়বে আর সাথে বাড়বে আপনার আয়ের পরিমাণ। তাহলে জেনে নেয়া যাক সে সম্পর্কে ;

১. Create Twitter Account 

  টুইটার থেকে ইনকাম করতে চাইলে নিশ্চয়ই আপনার একটি account  থাকা লাগবে?  আশা করছি আপনি ইতোমধ্যেই Google play store  থেকে app  টি download  করে install ও করে নিয়েছেন।

Twitter account  খোলা খুব একটা কঠিন কাজ না। আপনার নাম, আর ইমেইল অথবা মোবাইল নাম্বার দিয়ে খুব সহজেই খুলে নিতে পারবেন একাউন্টটি।  তাই এই আর্টিকেলে একাউন্ট খোলার বিষয়ে তেমন আলোচনা করছি না।

আশা করছি আপনি খুব সহজেই একাউন্টটি খুলতে সক্ষম হবেন। আর না পারলে, আমরা তো আছিই!

২. টুইটার Bio লিখা

” Twitter Bio ”  আপনাকে টুইটার search  এ খুঁজে পেতে সাহায্য করবে।  মনে রাখবেন আপনার Bio এর উপর আপনার ফলোয়ার সংখ্যা অনেকটাই নির্ভর করবে। টুইটারে ফলোয়ার বেশি মানে ইনকাম বেশি।

তাই আপনার bio কে যতোটা সম্ভব সুন্দর করে লিখার চেষ্টা করবেন যেন অন্যরা সেটি দেখে আকৃষ্ট হয়ে আপনাকে follow করতে উৎসাহিত হয়।

১৬০ লেটারের একটি বায়ো লিখতে হবে আপনাকে। আপনার যদি কোনো ওয়েবসাইট কিংবা বিজনেস থাকে তবে সেটিকে হ্যাশট্যাগের মাধ্যমে কি-ওয়ার্ড দ্বারা যুক্ত করুন। তবে খেয়াল রাখবেন হ্যাশট্যাগটি যেনো ক্লিক্যাবল হয়, অর্থাৎ হ্যাশট্যাগে ক্লিক করলে যেন কি-ওয়ার্ডে প্রবেশ করে।

১৬০ অক্ষরে আপনার বায়োগ্রাফিটা যতোটা সম্ভব আকর্ষণীয় করে লিখার চেষ্টা করুন যা আপনার follower সংখ্যা বাড়াতে সাহায্য করবে। 

৩. Profile Image ব্যবহার করুন

নিজের এমন একটি ব্যক্তিত্বসম্পন্ন ছবি প্রোফাইলে  ব্যবহার করুন যা দেখলে আপনার সম্পর্কে অন্যদের ভালো ধারণা হয়।

তবে এটি যদি বিজনেস একাউন্ট হয় তাহলে অবশ্যই কোম্পানির লোগো ব্যবহার করবেন।

৪.  হেডার ইমেজ ব্যবহার করুন

ফেইসবুকের মতো টুইটারেও হেডার ইমেজ ব্যবহারের সুযোগ রয়েছে। তাই আপনার উচিত এই অপশনটিকেও কাজে লাগানো। 

এক্ষেত্রে  ম্যাগাজিনের কাভারের মতো সুন্দর ছবি হেডার ইমেজ হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন। মাঝে মাঝেই পাল্টে ফেলবেন এই ইমেজ।

আর আপনার বিজনেসের ক্ষেত্রে ইমেজের এমন  নাম দিন যা ব্রান্ডকে প্রমোট করতে সাহায্য করবে।

কিভাবে টুইটার থেকে আয় করা যায়

টুইটার থেকে ইনকাম করার অনেক উপায় রয়েছে। এর মধ্যে কিছু কাজ করার মাধ্যমে আয় করতে পারবেন এবং বিজ্ঞাপন থেকেও আয় করতে পারবেন আপনি।

এখানে আমরা কী কী কাজ করে ইনকাম করতে পারবেন এবং বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে কিভাবে আয় করবেন? তা তুলে ধরবো। তাহলে চলুন জেনে নেয়া যাক সেসব বিষয়ে;

১. টুইটার থেকে আয় করুন ফলোয়ার সংগ্রহ

Followers  সংগ্রহের দ্বারা কী করে  ইনকাম করা যায়? এটাও কি সম্ভব নাকি? জি, এটা সম্ভব।  টুইটারে ছোট – বড় এমন অনেক ব্যবসায়ী রয়েছেন যাদের নিজেদের পণ্যকে প্রমোট করতে কিংবা বিক্রির জন্য ফলোয়ারের দরকার পরে।

টুইটার থেকে ইনকাম

এছাড়া অনেকের অনেক কাজে ফলোয়ারসের প্রয়োজন পরে। আপনার কাজ হলো ফলোয়ারস সংগ্রহ করা। এই Followers সংগ্রহ করে দেয়ার মাধ্যমেই আপনি ইনকাম করতে পারবেন টুইটার থেকে।

২. টুইটার একাউন্ট তৈরি করে আয়

 ব্যবসায়ীদের কাজের জন্য অনেক টুইটার একাউন্টের প্রয়োজন পরে। আর তাদের হাতে যথেষ্ট সময় না থাকায় তারা এই কাজটি করিয়ে নেন অন্যদের দিয়ে।  টুইটারে একাউন্ট তৈরির এমন অনেক কাজ আপনি পেতে পারেন। 

৩. রিটুইট ( Retweet ) করে ইনকাম

টুইটার থেকে রিটুইটের মাধ্যমে ভালো মানের আয় করা যায়। আপনি নিশ্চয়ই ভাবছেন, রিটুইটের মাধ্যমে আবার কি করে আয় করা যায়?

মনে করুন একজন ব্যবসায়ী নিজের পণ্য প্রমোট কিংবা বিক্রির জন্য টুইটারে টুইট করলেন। এখন আপনি যদি নিজের একাউন্ট দিয়ে ঐ পন্যগুলো রিটুইট করে বেশিসংখ্যক মানুষের কাছে পৌঁছে দেন, তখন ঐ পণ্যের বিক্রি বেড়ে যাবে। আর এর মাধ্যমেই আয় করবেন আপনি।

তবে এই রিটুইটের জন্য আপনার টুইটার একাউন্টটিতে ফলোয়ারের সংখ্যা অনেক বেশি হতে হবে।

৪. একাউন্ট ম্যানেজ করে

টুইটারে এমন অনেক বায়ার আছেন যাদের অনেক টুইটার একাউন্ট আছে। তবে তাদের ব্যস্ততার জন্য এতোগুলো একাউন্ট সামলানো হয়ে উঠে না। তাই তারা লোক খুঁজেন এই কাজ করে দেয়ার জন্য। 

 আর এই কাজটি যদি আপনি করে দিতে পারেন তবে ইনকাম হবে আপনার। আপনার কাজ হলো বায়ারদের একাউন্টগুলো সামলানো এবং প্রমোট করা।

৫. ব্যাকগ্রাউন্ড ইমেজ তৈরি

আপনি কি ব্যাকগ্রাউন্ড ইমেজ তৈরি করতে পারেন? তাহলেই হলো, এটা দিয়েই আয় করতে পারবেন টুইটারে।

টুইটারে ছোট – বড় বিভিন্ন কোম্পানি,  celebrity  দের ছবির জন্য Background image  এর প্রয়োজন পরে। আপনি যদি সুন্দর  ব্যাকগ্রাউন্ড image তৈরি করতে জানেন তবে এর মাধ্যমে ভালো মানের ইনকাম করতে পারবেন টুইটার থেকে। 

কোথায় কাজগুলো পাওয়া যায়?

বিভিন্ন ফ্রিল্যান্সিং ওয়েভবসাইটগুলোতে আপনি টুইটারের এমন অসংখ্য কাজ খুঁজে পাবেন। টুইটারে কাজ পাওয়ার মতো জনপ্রিয় কয়েকটি ফ্রিল্যান্সিং সাইট হলো ওডেক্স, ফ্রিল্যান্সার, ইল্যান্সার ইত্যাদি। 

৬. বিজ্ঞাপন থেকে ইনকাম 

আপনার পোস্ট অথবা টুইটে বিজ্ঞাপন যুক্ত করেও ইনকাম করতে পারবেন টুইটার থেকে।  বিজ্ঞাপনের প্রতি ক্লিকেই মিলবে টাকা।

এখন প্রশ্ন হচ্ছে, পোস্টে বিজ্ঞাপন ( advertisement ) বসাবে কে? চিন্তার কোনো কারণ নেই। অনলাইনে এমন অনেক স্পন্সর রয়েছেন যারা এড বসানোর কাজে জড়িত। আপনাকে শুধু খোঁজে বের করতে হবে বিশ্বস্ত স্পন্সর সাইটগুলোকে।

ভাবনার কিছু নেই, আমরাই এই আর্টিকেলে আপনাদের সুবিধার্থে এমনই পাঁচটি জনপ্রিয় এবং বিশ্বস্ত স্পন্সর সাইটের নাম তুলে ধরবো।

তবে এর জন্য আপনাদের প্রয়োজন পরবে এই সাইটগুলোতে একাউন্ট খোলা এবং তাদের সাথে চুক্তিবদ্ধ হওয়া। 

তাহলে চলুন দেরি না করে এমনই পাঁচটি সাইট সম্পর্কে জেনে নেয়া যাক;

১. স্পন্সরড টুইটস ( Sponsored Tweets)

এটি টুইটার জগতের খুবই পরিচিত এবং বিশ্বস্ত একটি অ্যাড সার্ভিস প্লাটফর্ম।  এটি আপনার একাউন্টের প্রতি পোস্ট কিংবা টুইটে অ্যাড প্রদর্শনের এবং অ্যাড ক্লিকে টাকা ইনকামের সুযোগ দিচ্ছে। 

এই অ্যাড সার্ভিসটির আরও একটি ধারুণ ব্যাপার হচ্ছে,  অ্যাডের প্রতি ক্লিকে কতো ডলার করে আসবে সেটা আপনি নিজে নির্ধারণ করে দিতে পারবেন।  এবং আপমি আপনার পোস্টে কোন ধরনের অ্যাডস প্রদর্শন করাতে চাইছেন সেটাও আপনি নিজে ঠিক করতে পারবেন।

তবে স্পন্সরড টুইটসের সাথে ব্যবসায়িক চুক্তির জন্য আপনার একাউন্টে কমপক্ষে ৫০ জন Followers এবং ১০০ টি পোস্ট / টুইট থাকা লাগবে।

২. মাই লাইকস ( My likes ) 

My likes একটি অ্যাডভারটাইজিং প্লাটফর্ম যা বর্তমানে Post intelligence হিসেবে পরিচিত।

এটি টুইটার ছাড়াও ব্লগস, টাম্বলারের মতো জনপ্রিয় সাইটগুলোতে ব্যবহৃত হচ্ছে অ্যাডভারটাইজিং নেটওয়ার্ক হিসেবে। 

এরা বিভিন্ন Advertisers  এর অ্যাডস পিপিসি বা পে পার ক্লিক ম্যাথডে দিয়ে থাকে। অ্যাডসের প্রতি ক্লিকে আপনি পাবেন  0.42 doller বা ৩৫.৬ টাকা। তার মানে একদিনে  যদি ১০ টাও ক্লিক পরে তাহলেও আপনি দিনে পাচ্ছেন ৩৫৬ টাকা করে।

৩. অ্যাড.লি ( Ad.ly) 

Ad.ly  আরো একটি জনপ্রিয় অ্যাডভারটাইজিং স্পন্সর নেটওয়ার্ক।  এটি আপনার প্রতিটি টুইটের সাথে অটোমেটিকেলি  অ্যাডভারটাইজারদের অ্যাড যুক্ত করে দিবে।

টুইটার থেকে আয়

তবে অ্যাডে ক্লিক করলেই টাকা পাবেন না, যতক্ষণ পর্যন্ত না কোন অ্যাডভারটাইজার আপনার প্রোফাইলকে অ্যাড প্রদর্শনের জন্য পছন্দ করেন।

আপনি অ্যাড.লি তে আবেদন করার পর তারা আপনার প্রোফাইল পরিদর্শন করে দেখবে। যদি আপনার প্রোফাইল তাদের অ্যাড প্রদর্শনের জন্য যোগ্য মনে হয় তবে আপনি আপনার টুইটের সাথে অ্যাড প্রদর্শন করাতে পারবেন।

এবং একটা নির্দিষ্ট সময় পর পর পেমেন্ট পাবেন।

৪. Rev Twt

এটি আরো একটি পরিচিত টুইটার based অ্যাডভারটাইজিং অনলাইন সার্ভিস।  এটিও My likes এর মতো পিপিসি বা পে পার ক্লিক ( Pay per click )  মেথডে আপনার টুইটে অ্যাড দিয়ে  থাকে। আপনার একাউন্টিতে যতো বেশি সংখ্যক ফলোয়ার থাকবে ততো বেশি অ্যাড ক্যাম্পেইনে যুক্ত হতে পারবেন এবং ততো বেশি ইনকাম হবে আপনার।

তবে এই সার্ভিসের ক্ষেত্রে আপনার একাউন্টে নূন্যতম ২০ ডলার  হলে তবেই উইথড্র করতে পারবেন।

৫. Twittad 

এটি টুইটার জগতের প্রথম অ্যাড স্পন্সর নেটওয়ার্ক।  এতে আপনি প্রতি ক্লিকে মূল্য নির্ধারণ করে দিতে পারবেন। তবে সেটি কার্যকর হবে তখন, যখন  অ্যাড স্পন্সর আপনার মূল্য সঠিক বলে বিবেচিত করবে। 

এছাড়াও এটিতে আপনার সঠিক ক্যাটাগরি নির্ধারণ করে দিতে হবে, যাতে অ্যাডভারটাইজাররা তাদের product এর বিজ্ঞাপন সঠিক প্রোফাইলে প্রদর্শন করাতে পারে।

Twittad  এর ক্ষেত্রে আপনার একাউন্টে ৩০ ডলার জমা হওয়ার পর টাকা উত্তোলন করতে পারবেন।

এছাড়াও টুইটার থেকে ইনকামের আরো অনেক উপায় রয়েছে। যেমন; প্রোফাইল ব্যানার সেল, বায়ার প্রোডাক্টস সেল, এবং স্পেশালি স্পন্সর অ্যাডস ।

শেষ কথা 

টুইটার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোর মধ্যে জনপ্রিয় একটা প্লাটফর্ম। সারা বিশ্বের কোটি – কোটি মানুষ প্রতিদিন বিনোদন, ব্যবসা ইত্যাদি বিভিন্ন কাজে ব্যবহার করছেন টুইটার।

আপনিও যদি টুইটার থেকে আয় করতে চান,  তাহলে ধৈর্য আর বিচক্ষণতার সহিত টুইটার দিয়ে আয় করার কাজ শুরু করে দিন আজই।  

এই আর্টিকেলে আমরা টুইটার থেকে ইনকামের উপয়াগুলো তুলে ধরেছি। এছাড়াও আপনার যদি কোনো প্রশ্ন থাকে, তাহলে আমাদেরকে কমেন্ট বক্সে জানিয়ে দিন ঝটপট। 

shimabithi09@gmail.com | + posts

জানার আগ্রহ আর লেখালেখির প্রতি ভালোবাসা থেকেই টুকটাক লেখালেখি করি।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *