ই পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করার নিয়ম + সংশোধন করার নিয়ম

ই পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করার নিয়ম

ই পাসপোর্ট আবেদনে ভুল হয়েছে অথচ বাতিল করতে পারছেন না? ই পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করার নিয়ম এবং ই পাসপোর্ট ভুল সংশোধন করার নিয়ম একটু আলাদা।  ই পাসপোর্ট আবেদনে ভুল থাকলে আবেদন বাতিল করার জন্য সশরীরে উপস্থিত হয়ে আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস উপ-পরিচালক বরাবর আবেদন পত্র জমা দিতে হয়।

ই পাসপোর্ট আবেদন করার নিয়ম নতুন হওয়ায় ই পাসপোর্ট আবেদনে ভুল হলে করণীয় কি তা আমরা অনেকেই জানি না। তাই, আমাদের আজকের আলোচনায় থাকছে ই পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করার নিয়ম এবং সেইসাথে, আবেদন বাতিল করার পর ই পাসপোর্ট সংশোধন করার নিয়ম জেনে নিয়ে পুনরায় পাসপোর্ট আবেদন করার উপায়।

পাসপোর্ট আবেদনের ভুল সংশোধন করতে প্রথমে ই পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করতে হবে। কেননা, আপনার ই পাসপোর্টের আবেদনে কোন ভুল থাকলে আবেদনটি গ্রহণ না করে আঞ্চলিক অফিস থেকে ফেরৎ পাঠানো হবে। তাছাড়া, আপনি নিজেও যদি আঞ্চলিক অফিসে যাওয়ার আগে কোন ভুল পেয়ে থাকেন, তাহলেও আপনার ই পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করে সংশোধন করতে হবে।

এক্ষেত্রে, ই পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করার নিয়ম এবং ই পাসপোর্ট সংশোধন করার নিয়ম জানা না থাকলে আগামী ৬ মাস আপনাকে নতুন করে আবেদন করার জন্য অপেক্ষা করতে হবে।

কেননা, ই পাসপোর্ট আবেদন সাবমিট করার পর ঘরে বসে ই পাসপোর্ট আবেদন সংশোধন করার কোন উপায় নেই। ই পাসপোর্টের জন্য অনলাইনে আবেদন সাবমিট করার পর থেকে ৬ মাস পর্যন্ত বায়োমেট্রিক এনরোলমেন্ট এবং টাকা জমা দেওয়ার জন্য সময় থাকে।

তাই, ৬ মাস পরই কেবল পাসপোর্ট আবেদনটি অফিস থেকে বাতিল করে দেয়। পাসপোর্ট আবেদন ৬ মাস পর বাতিল হলে তখন নতুন করে পাসপোর্টের জন্য আবেদন করার সুযোগ পাওয়া যাবে।

ই পাসপোর্ট আবেদন সংশোধন করতে এত দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করতে না চাইলে চলুন পাসপোর্ট আবেদনে ভুল থাকলে কিভাবে পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করবেন অর্থাৎ, ই পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করার নিয়ম ও ই পাসপোর্ট সংশোধন করার নিয়ম জেনে নেওয়া যাক।

ই পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করার নিয়ম | How to cancel e Passport Application

ই পাসপোর্ট আবেদনে আপনি কিংবা আঞ্চলিক অফিস যেখান থেকেই ভুল ধরা পড়ুক না কেন, ই পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করার জন্য সহকারী উপ-পরিচালকের সাথে সাক্ষাৎ করতে হবে।

উপ-পরিচালক বরাবর একটি দরখাস্ত ও অনলাইন আবেদন ফরমের হার্ড কপি এটাচ করে জমা দিলে সাথে সাথেই আপনার ই পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করে দিবেন। চলুন, তবে ই পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করার দরখাস্ত লেখার নিয়ম, নমুনা দরখাস্তের সফট কপি দেখে নেওয়া যাক।

ই পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করার দরখাস্ত

তারিখ:……………….

বরাবর,

সহকারী উপ-পরিচালক

আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস

ময়মনসিংহ।

বিষয়: পাসপোর্ট আবেদন বাতিল প্রসঙ্গে।

জনাব,

বিনীত নিবেদন এই যে, আমি মোঃ ……………………, পিতা:……………………., মাতা: …………………….। আমি গত ……../……./………. তারিখে ই পাসপোর্টের জন্য আবেদন করি। আমার অনলাইন রেজিঃ আইডি নং OID100380*******। আমার পাসপোর্টে …………… অংশে ভুল থাকায় পাসপোর্ট আবেদনটি বাতিল করতে ইচ্ছুক।

অতএব, জনাবের নিকট আকুল আবেদন এই যে, উপরিউক্ত সমস্যার কথা বিবেচনা করে আমার ই পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করতে আপনার একান্ত মর্জি হয়।

বিনীত নিবেদক

মোঃ………

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়

ময়মনসিংহ-২২০২।

পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করার দরখাস্ত.docx

এম আর পি পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করার নিয়ম

এম আর পি পাসপোর্ট বাতিল করার নিয়ম ই পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করার নিয়মের মতো একই। এম আর পি পাসপোর্ট বাতিল করার জন্য উপ-পরিচালক বরাবর দরখাস্ত লিখতে হবে, তবে এখানে অনলাইন রেজিঃ আইডি নং এর জায়গায় enrollment ID নাম্বার উল্লেখ করতে হবে।

Related:  ই পাসপোর্ট ফি কত ২০২২ | পাসপোর্ট করতে কত টাকা লাগে

ই পাসপোর্ট ভুল সংশোধন করার নিয়ম

ই পাসপোর্ট আবেদন সংশোধন করার জন্য আপনার পুরাতন ই পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করার পর থেকে ৭ দিন অপেক্ষা করতে হবে। এরপর অন্য একটি মেইল আইডি দিয়ে নতুন একাউন্ট তৈরি করে সঠিকভাবে পুনরায় ই পাসপোর্ট আবেদন করতে হবে।

তবে যদি আপনি সাবমিট না করে থাকেন, তাহলে সাবমিট করার পূর্ব পর্যন্ত যতবার, যেখানে খুশি সংশোধন করতে পারবেন। একবার সাবমিট করে ফেলার পর আবেদন বাতিল না করে আর সংশোধন করতে পারবেন না। তাই পাসপোর্ট আবেদন করার পূর্বে পাসপোর্ট আবেদন করার নিয়ম এবং ফরম পূরণের সময় কোন কোন বিষয়ের দিকে খেয়াল রাখা জরুরী তা দেখে নিন।

ই পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করলে টাকা কি নষ্ট হবে?

না, একদমই চিন্তার কারণ নেই। আপনার ই পাসপোর্ট আবেদনে টাকা পরিশোধ করার পর যদি আবেদনে কোন ভুল বের হয়, তাহলে পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করলেও একই ব্যাংক রিসিপ্ট সংশোধিত পাসপোর্ট আবেদনের সাথে জমা দিতে পারবেন।

তবে, পূর্বের ভুল আবেদনে যে মেয়াদ ও পৃষ্ঠা ছিল, নতুন সংশোধিত ই পাসপোর্ট আবেদনেও তাই রাখতে হবে। অর্থাৎ পাসপোর্ট আবেদন ফি যেন সমান থাকে, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।

তবে, পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করার পর যদি নতুন করে আবেদন না করেন, তাহলে ব্যাংকে জমাদানকৃত টাকা ফেরৎ পাবেন না।

ই পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করার নিয়ম নিয়ে শেষ কথা

আশা করি, ই পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করার নিয়ম এবং ই পাসপোর্ট ভুল সংশোধন করার নিয়ম সম্পর্কে অবগত করতে পেরেছি। আপনার যদি এখনো পাসপোর্ট আবেদন বাতিল ও সংশোধন সম্পর্কিত কোন প্রশ্ন থেকে থাকে, তবে কমেন্ট করে জানিয়ে দিন।

40 thoughts on “ই পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করার নিয়ম + সংশোধন করার নিয়ম”

  1. আমার পাসপোর্ট আমি হাতে পেয়ে গেছি কিন্তু আমার পাসপোর্ট একটি ভুল আছে । সেটি আমার এন আইডি কার্ডে নামের একটি অক্ষর ছিল না সেভাবেই পাসপোর্ট হয়ে গেছে।এখন আমি জন্মনিবদ্ধন ও এন আইডি কার্ডে সংশোধন করে পাসপোর্ট সংশোধন করতে চাই। আমি কিভাবে সংমোধন করতে পারি

    1. পাসপোর্ট সংশোধন করার জন্য পাসপোর্ট সংশোধন ফরম পূরণ করে আপনার সংশোধিত ডকুমেন্টস এবং সংশোধন ফি রশিদ সংযুক্ত করে উপ-পরিচালক বরাবর আবেদন করুন।

  2. আমি তারিক০৪/০৮/২০২২পাসপোটের জন্য আবদন করেছিলাম আমার মালিবাগের
    ঠীকানা দিয়েছিলাম আমর ঘড়বাড়ী নেই পুলিশ
    ভেরিফিকেশন ৩বার হয়ছে এখন আমার পাসপোট দিবে না এখন আমি কী করতে পারি

    1. ভেরিফিকশন ক্লিয়ারেন্স এর জন্য স্থায়ী ঠিকানা আবশ্যক। আর স্থায়ী ঠিকানা বলতে অবশ্যই নিজস্ব জায়গা থাকতে হয়। আপনার সমস্যায় করণীয় আমাদের হাতে নেই। আপনার নিজ উপজেলার পুলিশ কর্মকর্তার সাথে যোগাযোগ করলে তিনি চাইলে কিছু করতে পারেন

  3. আসসালামু আলাইকুম ওয়া রহমাতুল্লাহ, আমার একটা সমস্যা হয়েছে পাসপোর্টে দয়া করে আমাকে সাহায্য করবেন,আমার আগের পাসপোর্ট থাতা সত্যেও আমি না জানার কারণে আমি নতুন করে পাসপোর্টের জন্য আবেদন করেছিলাম এবং যাদের মাধ্যমে করেছি তারাও আমাকে কিছু জানায়নি যে একটা পাসপোর্ট করলে আরেকটার জন্য আবেদন করা যাবে না, তারা আমার কাছে থেকে ১৫ হাজার টাকা নিয়েছে পাসপোর্ট বানিয়ে দেবার জন্য, কিন্তু এখন বলছে পাসপোর্ট হবে না আবেদন বাতিল করতে করতে হবে, আমার আগের পাসপোর্ট এ ছয়বছর সংসধন করতে হবে এখন এই পাসপোর্ট এর আবেদন বাদ দিলে কি আমার টাকা আর আমি ফেরত পাবো না??
    আর আমার পাসপোর্ট সংসধন করতে কত টাকা খরচ হবে??
    আমি যে টাকা জমা দিয়েছি ওটা দিয়ে কি পাসপোর্ট সংসধন করতে পারবো?? প্লিজ দয়া করে উত্তর দিয়ে উপকৃত করবেন।

    1. আবেদন বাতিল করলে টাকা ফেরৎ পাবেন না।
      পাসপোর্ট সংশোধন করে ৭ দিনের মাঝে পেতে চাইলে ৬,৯০০ টাকা ফি আসবে। ২১ দিনের মাঝে পাসপোর্ট সংশোধন ফি ৩,৪৫০ টাকা।

  4. মোঃ শরীফ উল্লাহ

    আমি, মোঃ শরীফ উল্লা, গত-২৪/০৮/২০২২ তারিখে পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করার জন্য, উপ-পরিচারক বরাবর আবেদন করেছি,,কিন্তু ৩০/০৮/২০২২ তারিখ হয়ে গেছে,,,এখন পর্যন্ত পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করেনি,,এখন আমি কি করবো,,,

    1. আপনি আবারো উপ পরিচালক বরাবর পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করার জন্য দরখাস্ত নিয়ে যান। আপনি উপস্থিত থাকা অবস্থায় বাতিল করিয়ে নিবেন

  5. একটা হেল্প দরকার,আমি ই পাসপোর্ট এর জন্য আবেদন করেছি,সাবমিট করেছি,টাকা জমা দেই নি এখনও, কিনতু একটা ভুল ধরা পরছে-যেমন: আমি চাই ১০ বছরের কিন্তু ভুল করে ৫ বছরের মেয়াদ দিয়ে ফেলছি। এখন যদি ১০ বছরের টাকা জমা করে ছবি ও ফিনগার দিতে যাই তখনও কি আমার পাসপোর্টের মেয়াদ ৫ বছরের স্থলে ১০ বছর করার কোন উপায় আছে?????????????
    আমার আবেদন আনঅফিসিয়াল, পাসপোর্ট টা জরুরি দরকার ১৫ দিন এর মধ্যে দেশের বাইরে স্টাডি করতে যাবো। এ যেতে হবে। এই একটি সাধারন ভুল সংশোধন করে পারসপোট অফিস থেকে কি বায়োমেট্রিক করা সম্ভব ওনাদের কাছে ফাইনাল এডিট ও সাবমিট অপশন থাকার কথা আমি যদি ভুলের কথা বলি তাহলে আবেদন বাতিল করে দিবে পারসপোট অফিস নতুন করে ৭ দিন পর আবেদন করে আমি পিছিয়ে যাবো এবং সেম্টিার মিস করবো? এখন কি করতে পারি যদি দয়া করে বলতেন বিশেষ উপকৃত হতাম।

    1. আপনি পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করার দরখাস্ত নিয়ে উপ.পরিচালক এর সাথে সাক্ষাৎ করুন। দরখাস্ত দাখিলের আগে তাকে সমস্যা খুলে বলুন। যদি সম্ভব হয় (যেহেতু ইমার্জেন্সি কেস), সেক্ষেত্রে উনি কিছু করলে করতে পারবেন।
      যদি সম্ভব না হয়, তাহলে আবেদন বাতিল করিয়ে “অতি জরুরী” পাসপোর্ট এর জন্য আবেদন করুন। যা ২ কর্ম দিবসের মাঝে পাওয়া যায়। সেক্ষেত্রে আপনাকে নিজ দায়িত্বে পুলিশ ভেরিফিকশন ক্লিয়ারেন্স জমা দিতে হবে।

  6. আমি ২০১৭সালে পাসপোটের জন্য আবদন করেছিলাম আমার জন্মভূমি রাঙামাটী ওখানের
    ঠীকানা দিয়েছিলাম আমর ঘড়বাড়ী নেই পুলিশ
    ভেরিফিকেশন আটকে রেখেছে জমির কাগজ না দেখালে পাসপোট দিবে না এখন আমি কী করতে পারি

    1. নিজস্ব জমি না থাকলে বাংলাদেশ আইনে স্থায়ী বাসিন্দা হওয়া যায় না। আপনি যেখানে জমি আছে সেইক জায়গাকে স্থায়ী ঠিকানা হিসেবে ব্যবহার করুন

  7. আমি আবেদন করার সময় আমার আব্বু এবং আম্মু নাম ইংলিশ স্পেলিং ভুল করে ফেলছি। ছবি, ফিঙ্গার প্রিন্ট দিয়ে দিছি।
    এখন আমার পাসপোর্ট বার বার আটকে যাচ্ছে। আমি কি এই আবেদন বাতিল করতে পারব ?
    আর বাতিল করলে কি টাকাও বাতিল হয়ে যাবে ?।
    Pls Help

    1. আপনার পাসপোর্ট কোন পর্যায়ে আটকে গেছে?
      জ্বি, আবেদন বাতিল করতে পারবেন। যেহেতু, আবেদনের টাকার রশিদ জমা হয়ে গিয়েছে, সেক্ষেত্রে টাকা ফেরৎ পাবেন না

  8. আবু সুফিয়ান

    আমি আবেদন করার পর ফাইল টা কোথাও হারিয়ে গেছে। এখন আমি নতুন করে আবেদন করতে গেলে দেখায় আমার আইডি কার্ড দিয়ে আবেদন করা। এখন আমি কি করতে পারি আমার আগের আবেদন এর ফাইল এর কিছুই মনে নাই, কোন ইমেল দিছি তাও মনে নাই।

    1. আবেদন বাতিল না করে পুনরায় আবেদন করা যাবে না। প্রথমত আপনি ৬ মাস অপেক্ষা করতে পারেন, কারণ ৬ মাস পর আপনার আবেদন নিজে থেকেই বাতিল হয়ে যাবে।
      অথবা, এই লিঙ্ক ( epassport.gov.bd/authorization/forgot-password ) ভিজিট করে আপনার যত মেইল আছে, সবগুলো লিখে ট্রাই করুন। যেটা দিয়ে একাউন্ট করেছেন, সেইটাতেই রিকোভারি মেইল পাবেন। তারপর, একাউন্ট রিকোভার করে পুনরায় ফাইল ডাউনলোড করবেন।

  9. আমি ই পাসপোর্টের জন্য অনলাইনে আবেদন করেছিলাম, ৯ তারিখ ছবি তোলার তারিখ দিয়েছিল কিন্তু এখনো আমি টাকা জমা দিতে পারিনি। এখন আমার আবেদন কি বাতিল করা হয়েছে? নাকি ব্যাংক ড্রাফট করলে নতুন কোনো তারিখ জানিয়ে দেওয়া হবে?

    1. প্রথমে আপনার পাসপোর্ট আবেদন কি অবস্থায় আছে সেটা চেক করে নিতে হবে। যদি এখনো বাতিল করা না হয়, তাহলে টাকা জমা দিয়ে আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসে যাবেন। টাকা জমা দেওয়ার পর যদি অফিসে গিয়ে জানতে পারেন, এই আবেদনে কাজ হবে না, তাহলেও চিন্তা নেই। আপনার টাকা হারাবে না। এই টাকার রশিদ নতুন আবেদনে কাজে লাগাতে পারবেন।

  10. আমার পাসপোর্ট আবেদনপত্র এ থানার নাম ভুল আসছে। এখন কিভাবে আবেদন
    পত্র লিখতে হবে? জানালে উপকার হবে

  11. আমার আবেদনে given name এ Md. এবং surname এ monzurul haque লিখছি আবেদন সাবমিট করছি টাকা জমা দিছি তবে জমা দেইনি

    1. জমা দিতে যান। যদি আপনি কাজ করার উদ্দেশ্যে কখনো বাইরে না যান, তাহলে অফিসার সমস্যা করলে উপ-পরিচালকের নিকট যাবেন

  12. আমি ই-পাসপোট এর জন্য আবেদন করছি। ছবি এবং ফিঙ্গার দিছি। সম্প্রতি আমাকে পুনরায় সংসদনের জন্য এস,এম,এস করা হয়। আমার V.R.C ভেরিফাই হয়না। তাই আমি আবেদন বাতিল করতে চাই এবং পুনরায় আবেদন করতে চাই। এ ক্ষেত্রে কি আমাকে পুনরায় টাকা জমা দিতে হবে? এবং আবেদন বাতিল করতে কি টাকা লাগবে?

  13. একটা হেল্প দরকার,আমি ই পাসপোর্ট এর জন্য আবেদন করেছি,সাবমিট করেছি,টাকা জমা দিয়েছে,কিনতু একটা ভুল ধরা পরছে আমি এখনও ছবি ও ফিনগার দিতে যাই নাই,আমার আবেদন সরকারী অফিসিয়াল, পাসপোর্ট টা জরুরি দরকার ১৫ দিন এর মধ্যে দেশের বাইরে একটা টেরনিং এ যেতে হবে।এই একটি ভুল সংশোধন করে পারসপোট অফিস থেকে কি বায়োমেট্রিক করা সম্ভব ওনাদের কাছে ফাইনাল এডিট ও সাবমিট অপশন থাকার কথা আমি যদি ভুলের কথা বলি তাহলে আবেদন বাতিল করে দিবে পারসপোট অফিস নতুন করে ৭ দিন পর আবেদন করে আমি পিছিয়ে যাবো এবং টেরনিং মিস করবো? এখন কি করতে পারি যদি বলতেন বিশেষ উপকৃত হতাম।পিলিজ

    1. আপনি আগামী রবিবার সহকারী উপপরিচালক বরাবর দরখাস্ত করে আবেদন বাতিল করান। এরপর উনাকে আপনার সমস্যা সম্পর্কে খুলে বলুন। উনার হাতে যদি কোন উপায় থাকে, তবে অবশ্যই হেল্প করবেন আশা করি। আপনার জন্য শুভকামনা ।

  14. আমার MRP আছে,

    ই পাসপোর্টে আমার স্থায়ী ঠিকানা গ্রামের টা বাদ দিয়ে ঢাকার স্থায়ী ঠিকানা দিতে চাচ্ছি।

    সেক্ষেত্রে ঢাকার নতুন স্থায়ী ঠিকানার স্বপক্ষে কি কি ডকুমেন্ট সংযুক্তি করা লাগতে পারে আবেদন পত্রের সাথে?

      1. আমার ই-পাসপোর্ট আবেদনটি বাতিলের আবেদন করার পরে, ২১ এপ্রিল আমার মেইল এবং এস.এম.এস এসেছে যে, আবেদন বাতিল হয়েছে।
        কিন্তু এখন নতুন করে এপ্লাই করতে পারছি না। দেখাচ্ছে আমার ন্যাশনাল আইডি কার্ড দিয়ে অলরেডি এপ্লিকেশন করা আছে, তাহলে কি আমার আবেদনটি বাতিল হয়নি?
        কিভাবে আবার আবেদন করবো?

        1. মেইল পাওয়ার দিন থেকে ৭ দিন পর নতুন মেইল আইডি দিয়ে একাউন্ট করবেন। এই আইডি থেকে আবেদন করলে আশা করি হয়ে যাবে ইনশাআল্লাহ্‌।

      2. আমার অনলাইন রেজিস্ট্রেশন ইনকম্পিলিট হওয়াতে ইমেইল এসেছিলো সেপ্টেম্বর ১ তারিখে আমি সেইটা খেয়াল করিনি। ৭ দিনের মধ্যে না করলে ডিলেট হয়ে যাবে অটোমেটিকলি । এইটা আমি আজকে দেখলাম এখন করণিয় কি? ডিলেট হয়ে গেলে কি হবে??? আবার কি ব্যাংক ড্রাফট করতে হবে?
        আবার ওয়েবসাইটে গিয়ে রিইস্যু অপশনে ক্লিক করলে আমার স্ট্যাটাস এ দেখাচ্ছে ইনরোলমেন্ট ইন প্রসেস….. এর মানে কি?

        1. আপনার টাকা জমা দেওয়ার রশিদ থাকলে সেটা নতুন পাসপোর্ট আবেদনের সাথে জমা দিতে পারবেন, সমস্যা নেই।
          আপনার পাসপোর্ট আবেদন করার ৬ মাসের মধ্যে বায়োমেট্রিক এনরোলমেন্ট এবং টাকা জমা না দেওয়ায় আবেদনটি বাতিল হয়ে যাচ্ছে।
          এনরোলমেন্ট ইন প্রসেস বলতে, এখনো আবেদন সম্পূর্ণ হয়নি, এটা জাস্ট আবেদন স্ট্যাটাস চেক করছেন।

          1. আসসালামু আলাইকুম?
            আমি ই-পাসপোর্টের জন্য আবেদন করেছি.
            আমার আইডি কার্ড এ বাবার নামের আগে মৃত নেই. কিন্তু পিতার তথ্যে মৃত দিয়ে দিছি.
            আমার এনআইডি প্রোফাইল এ বাবার মৃত্যু সন উল্লেখ আছে এ ক্ষেত্রে আমি ব্যাংকে টাকা ডিপোজিট করতে কনফিউশান এ আছি.
            এট দ্বারা কোনো সমস্যা হবে কিনা?
            জানালে উপকৃত হতাম.
            ধন্যবাদ.

            1. পাসপোর্ট আবেদন সম্পন্ন করতে ব্যাংকে টাকা দিয়ে বায়োমেট্রিক এনরোলমেন্ট এর জন্য চলে যান। সাথে আপনার বাবার মৃত্যু সনদ নিয়ে যাবেন (ইউনিয়ন অফিসে পাবেন)। তাহলে আশা করি সমস্যা হবে না। যদি আপনাকে ফিরিয়ে দেয়, তাহলে সরাসরি উপ-পরিচালক বরাবর চলে যাবেন, তার সাথে কথা বললে তিনি হয়তো সুপারিশ করে দিতে পারেন। তারপরেও সমাধান না হলে পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করে সংশোধন করুন। সেক্ষেত্রে আপনার টাকা নষ্ট হবে না। পাসপোর্ট ফি জমাদানের রশিদ নতুন পাসপোর্ট আবেদনের সাথে সংযুক্ত করতে পারবেন।

Leave a Comment

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।