ই পাসপোর্ট আবেদন বাতিল ও সংশোধন করার নিয়ম

ই পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করার নিয়ম

e passport আবেদনে ভুল হলে করণীয় কি তা আমরা অনেকেই জানি না। ই পাসপোর্টের আবেদনে ভুল থাকলে সংশোধন করতে ই পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করতে হয়। এজন্য ই পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করার নিয়ম জানা জরুরী। কেননা, আপনার ই পাসপোর্টের আবেদনে কোন ভুল থাকলে আবেদনটি গ্রহণ না করে আঞ্চলিক অফিস থেকে ফেরৎ পাঠানো হবে।

তাছাড়া, আপনি নিজেও যদি আঞ্চলিক অফিসে যাওয়ার আগে কোন ভুল পেয়ে থাকেন, তাহলে আপনার ই পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করে সংশোধন করতে হবে।

এক্ষেত্রে ই পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করার নিয়ম এবং ই পাসপোর্ট আবেদন সংশোধন করার নিয়ম জানা না থাকলে আগামী ৬ মাস আপনাকে নতুন করে আবেদন করার জন্য অপেক্ষা করতে হবে।

কেননা, আবেদন সাবমিট করার পর ঘরে বসে ঠিক করার কোন উপায় নেই। আবার, ই পাসপোর্টের জন্য অনলাইনে আবেদন সাবমিট করার পর থেকে ৬ মাস পর্যন্ত সময় থাকে, এরপরই কেবল আবেদনটি অফিস থেকে বাতিল করে দেয়। আবেদন ৬ মাস পর বাতিল হলে তখন নতুন করে পাসপোর্টের জন্য আবেদন করার সুযোগ পাওয়া যাবে।

অপেক্ষা করতে না চাইলে চলুন পাসপোর্ট আবেদনে ভুল থাকলে কিভাবে e passport application cancel করবেন, তা জেনে নেওয়া যাক।

ই পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করার নিয়ম

ই পাসপোর্ট আবেদনে আপনি কিংবা আঞ্চলিক অফিস যেখান থেকেই ভুল ধরা পড়ুক না কেন, e passport আবেদন বতিল করার জন্য সহকারী উপ-পরিচালকের সাথে সাক্ষাৎ করতে হবে।

উপ-পরিচালক বরাবর একটি দরখাস্ত ও অনলাইন আবেদন ফরমের হার্ড কপি এটাচ করে জমা দিলে সাথে সাথেই আপনার ই পাসপোর্ট আবেদন ক্যান্সেল করে দিবে।

ই পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করার জন্য দরখাস্ত লেখার নিয়ম

তারিখ:……………….

বরাবর,

সহকারী উপ-পরিচালক

আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস

ময়মনসিংহ।

বিষয়: পাসপোর্ট আবেদন বাতিল প্রসঙ্গে।

জনাব,

বিনীত নিবেদন এই যে, আমি মোঃ ……………………, পিতা:……………………., মাতা: …………………….। আমি গত ……../……./………. তারিখে ই পাসপোর্টের জন্য আবেদন করি। আমার অনলাইন রেজিঃ আইডি নং OID100380*******। আমার পাসপোর্টে …………… অংশে ভুল থাকায় পাসপোর্ট আবেদনটি বাতিল করতে ইচ্ছুক।

অতএব, জনাবের নিকট আকুল আবেদন এই যে, উপরিউক্ত সমস্যার কথা বিবেচনা করে আমার ই পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করতে আপনার একান্ত মর্জি হয়।

বিনীত নিবেদক

মোঃ………

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়

ময়মনসিংহ-২২০২।

ই পাসপোর্ট আবেদন সংশোধন করার নিয়ম

আপনার ই পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করার পর ৭ দিন অপেক্ষা করতে হবে। এরপর নতুন একটা মেইল আইডি দিয়ে একাউন্ট তৈরি করে নতুন করে সঠিকভাবে ই পাসপোর্টের জন্য পুনরায় আবেদন করতে হবে।

তবে যদি আপনি সাবমিট না করে থাকেন, তাহলে সাবমিট করার পূর্ব পর্যন্ত যতবার, যেখানে খুশি সংশোধন করতে পারবেন। একবার সাবমিট করে ফেলার পর আবেদন বাতিল না করে আর সংশোধন করতে পারবেন না। তাই আবেদন করার পূর্বে পাসপোর্ট আবেদনে কোন কোন জিনিসগুলোর দিকে খেয়াল রাখা জরুরী তা দেখে নিন।

ই পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করলে টাকা কি নষ্ট হবে?

নাহ, একদমই চিন্তার কারণ নেই। আপনার ই পাসপোর্ট আবেদনে টাকা পরিশোধ করার পর যদি আবেদনে কোন ভুল বের হয়, তাহলে আবেদন বাতিল করলেও একই ব্যাংক রিসিপ্ট সংশোধিত আবেদনের সাথে জমা দিতে পারবেন।

তবে পূর্বের ভুল আবেদনে যে মেয়াদ ও পৃষ্ঠা ছিল, নতুন সংশোধিত ই পাসপোর্ট আবেদনেও তাই রাখতে হবে। অর্থাৎ পাসপোর্ট আবেদন ফি যেন সমান থাকে, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।

আশা করি, ই পাসপোর্ট আবেদন বাতিল করার নিয়ম এবং e passport আবেদন সংশোধন করার নিয়ম সম্পর্কে অবগত করতে পেরেছি। আপনার যদি সম্পর্কিত কোন প্রশ্ন থেকে থাকে, তবে কমেন্ট করতে ভুলবেন না যেন।

8 thoughts on “ই পাসপোর্ট আবেদন বাতিল ও সংশোধন করার নিয়ম”

  1. একটা হেল্প দরকার,আমি ই পাসপোর্ট এর জন্য আবেদন করেছি,সাবমিট করেছি,টাকা জমা দিয়েছে,কিনতু একটা ভুল ধরা পরছে আমি এখনও ছবি ও ফিনগার দিতে যাই নাই,আমার আবেদন সরকারী অফিসিয়াল, পাসপোর্ট টা জরুরি দরকার ১৫ দিন এর মধ্যে দেশের বাইরে একটা টেরনিং এ যেতে হবে।এই একটি ভুল সংশোধন করে পারসপোট অফিস থেকে কি বায়োমেট্রিক করা সম্ভব ওনাদের কাছে ফাইনাল এডিট ও সাবমিট অপশন থাকার কথা আমি যদি ভুলের কথা বলি তাহলে আবেদন বাতিল করে দিবে পারসপোট অফিস নতুন করে ৭ দিন পর আবেদন করে আমি পিছিয়ে যাবো এবং টেরনিং মিস করবো? এখন কি করতে পারি যদি বলতেন বিশেষ উপকৃত হতাম।পিলিজ

    1. আপনি আগামী রবিবার সহকারী উপপরিচালক বরাবর দরখাস্ত করে আবেদন বাতিল করান। এরপর উনাকে আপনার সমস্যা সম্পর্কে খুলে বলুন। উনার হাতে যদি কোন উপায় থাকে, তবে অবশ্যই হেল্প করবেন আশা করি। আপনার জন্য শুভকামনা ।

  2. আমার MRP আছে,

    ই পাসপোর্টে আমার স্থায়ী ঠিকানা গ্রামের টা বাদ দিয়ে ঢাকার স্থায়ী ঠিকানা দিতে চাচ্ছি।

    সেক্ষেত্রে ঢাকার নতুন স্থায়ী ঠিকানার স্বপক্ষে কি কি ডকুমেন্ট সংযুক্তি করা লাগতে পারে আবেদন পত্রের সাথে?

      1. আমার ই-পাসপোর্ট আবেদনটি বাতিলের আবেদন করার পরে, ২১ এপ্রিল আমার মেইল এবং এস.এম.এস এসেছে যে, আবেদন বাতিল হয়েছে।
        কিন্তু এখন নতুন করে এপ্লাই করতে পারছি না। দেখাচ্ছে আমার ন্যাশনাল আইডি কার্ড দিয়ে অলরেডি এপ্লিকেশন করা আছে, তাহলে কি আমার আবেদনটি বাতিল হয়নি?
        কিভাবে আবার আবেদন করবো?

        1. মেইল পাওয়ার দিন থেকে ৭ দিন পর নতুন মেইল আইডি দিয়ে একাউন্ট করবেন। এই আইডি থেকে আবেদন করলে আশা করি হয়ে যাবে ইনশাআল্লাহ্‌।

Leave a Comment

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

error: Content is protected !!