ইকো প্রিন্ট টিউটোরিয়াল : প্রাকৃতিকভাবে কাপড় ও কাগজ নকশা করার উপায়

ইকো প্রিন্ট কিভাবে করে

ইকো প্রিন্ট! আপনি যদি রাসায়নিক রঙের পরিবর্তে প্রাকৃতিক উপায়ে কাপড় কিংবা কাগজে নকশা, ছবি আঁকতে চান, কিংবা রঙ করতে চান, তবে অবশ্যই সেরা সমাধান ইকো প্রিন্ট।

শিল্পকর্মের প্রতি আপনার যদি আলাদা ভালোলাগা কাজ করে কিংবা আপনি যদি একজন শিল্পী হয়ে থাকেন, তাহলে নিশ্চয়ই ইতিমধ্যে Eco Print সম্পর্কে শুনেছেন। তবে আপনার উত্তরটি যদি “না” হয়, তাহলে চলুন আমরাই আপনার শৈল্পিক মনোভাবে যোগ করি এক নতুন মাত্রা।

ইকো প্রিন্ট ( Eco Print ) কি?

ইকো প্রিন্টের ইতিহাস অনেক পুরনো, তবে এসম্পর্কে খুব কমই জানা গেছে। ইকো প্রিন্ট হচ্ছে প্রাকৃতিক উপাদান (যেমন: ফুল, পাতা, লতাগুল্ম ইত্যাদি) ব্যবহার করে কাপড় বা কাগজে অভিনব কৌশলে বিচিত্র নকশা তৈরির পদ্ধতি।

ইকো প্রিন্ট কি

কাপড়ের ভেতরে সাজানো ফুল বা পাতা ভাপ দেওয়া বা সিদ্ধ করার মাধ্যমে কাপড়ে লেগে যায় এবং ফুল ও পাতার ছাপ কাপড়ে লেগে বিভিন্ন নকশা তৈরি হয়। আর এভাবেই প্রাকৃতিক উপাদানগুলো ব্যবহার করে খুব সুন্দর নকশা তোলা হয়।

ইকো প্রিন্ট কেন ব্যবহার করবো?

এখন অবশ্য স্বাভাবিকভাবেই আপনার মনে প্রশ্ন জাগবে কেন আমরা রাসায়নিক রঙ ব্যবহার না করে eco-print ব্যবহার করব?

ইকো প্রিন্ট ব্যবহার করা শুধু লাভজনক এবং সহজ প্রক্রিয়া এজন্য ব্যবহার করবেন তা কিন্তু নয়, রাসায়নিকের ব্যবহার কমিয়ে প্রাকৃতি রঙ দিয়ে নকশা করা এখন আমাদের সামাজিক দায়িত্বও বটে।

ইকোপ্রিন্ট আমাদের পরিবেশের জন্য অপার সম্ভাবনার ক্ষেত্র তৈরি করেছে, যা আপনার কাছে কেবল একটি প্রতিবেদনের মাধ্যমে সম্পূর্ণভাবে তুলে ধরা সম্ভব নয়। তবে কিছু গুরুত্বপূর্ণ অবদানের কথা উল্লেখ করাই যায়। চলুন আপনার মনে উঁকি দেওয়া এই প্রশ্নটি নিয়ে কিছুটা সময় ব্যয় করা যাক;

  • প্রথমত, রাসায়নিকের পরিবর্তে প্রাকৃতিক রঙ ব্যবহার করায় পরিবেশ বিপর্যয়ের ঝুঁকি অনেকটা কমে যাবে। 
  • রাসায়নিকের ব্যবহার কমিয়ে, ইকোপ্রিন্টের মাধ্যমে প্রকৃতির অবদান সম্পর্কে সবাইকে সচেতন করে তুলতে পারবেন।
  • সহজেই আপনার আশেপাশেই ইকো প্রিন্ট তৈরির প্রয়োজনীয় উপাদানগুলো পেয়ে যাবেন। 
  • খুব কম দামে প্রয়োজনীয় উপাদানগুলো কিনতে পারবেন এমনকি, বিনামূল্যেও প্রকৃতি থেকে সংগ্রহ করতে পারেন।
  • প্রাকৃতিক উপকরণ এর সাহায্যে সহজেই কাপড় বা কাগজপত্রে নান্দনিক এবং উন্নত মানের নকশা ফুটিয়ে তুলতে পারেন।
  • ইকো প্রিন্ট একটি সহজ এবং সাশ্রয়ী প্রক্রিয়া। সুতরাং আপনি এটিকে পেশা হিসেবে বেছে নিয়ে জাতির ভাগ্যের চাকা পরিবর্তন করতে পারেন এবং যা একটি কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি করবে।
  • একজন উদ্যোক্তা হিসেবে দেশে পোশাকের চাহিদা মিটিয়ে, বাইরের দেশগুলো নিজের প্রতিভা ছড়িয়ে দিতে পারেন।
    Related:  ডিজিটাল মার্কেটিং কি, কেন, কিভাবে | Digital marketing in Bangla

    তাছাড়া, আপনি সহজেই আপনার পোশাকের পছন্দ অনুযায়ী ছাপ এবং নকশা আঁকিয়ে আপনার নিজস্ব স্টাইলগুলি তৈরি করতে পারেন।

    ইকো প্রিন্ট তৈরির জন্য প্রয়োজনীয় উপাদান

    এতক্ষণ আমরা eco print এর গুরুত্ব জানলাম। এখন কীভাবে ইকো প্রিন্ট ব্যবহার করবেন চলুন তা জেনে নেওয়ার চেষ্টা করি।

    ইকো প্রিন্টের জন্য উদ্ভিদ এবং পাতা

    মেহেদী পাতা, নাস্তুরিয়াম পাতা, জুঁইয়ের পাতা, লতাগুল্ম জাতীয় উদ্ভিদ, বিভিন্ন ধরনের শাক ইত্যাদি ব্যবহার করতে পারেন, যা আপনার কাপড়ে রঙের বৈচিত্র্য বাড়িয়ে তুলবে।

    ইকো প্রিন্টে ফুলের ব্যবহার 

    গাঁদা, গোলাপ, ঘাস ফুল, চেরি ফুল, জুঁই, ডালিয়া, নয়নতারা, পীচ ফুল, ফক্সগ্লোভ, ভায়োলেট, সূর্যমুখী আপনার পোশাকের অভিনবত্বকে বাড়িয়ে তুলবে কয়েকগুণ। 

    তবে, ব্যক্তিগতভাবে আমি সাধারণ ফুল এবং পাতার ব্যবহারে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করি, যা আমি আমার কাছাকাছি খুব সহজেই পেতে পারি। 

    তাছাড়া এগুলো নিজস্ব প্রাকৃতিক রূপটি খুব সুন্দরভাবে উপস্থাপন করে, সংগ্রহ করা সহজ এবং ব্যবহার করাও সুবিধাজনক। 

    কাগজে ইকো প্রিন্ট করার উপাদানসমূহ 

    • ভারী কার্ডস্টক কাগজ 
    • আপনার পছন্দ অনুযায়ী বিভিন্ন ধরনের পাতা এবং ফুল 
    • লোহা বা তামার দ্রবণ (ঐচ্ছিক) 
    • পিন
    • গ্লাভস 
    • পানি 
    • চুলা 
    • ফিটকিরি গুঁড়া 
    • জার

    কাগজে ইকো প্রিন্ট তৈরির প্রক্রিয়া

    সর্বপ্রথম আপনাকে নিজের সুরক্ষার কথা মনে রাখতে হবে! আপনার জন্য ক্ষতিকর এমন কোন কিছুই ব্যবহার করবেন না। আপনি যখন আগুন ব্যবহার করবেন, তখন আপনাকে অবশ্যই অতিরিক্ত সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে।

    কাগজের উপর প্রাকৃতির রঙ দিয়ে নকশা তোলার প্রক্রিয়াটি দেখে নেওয়া যাক:

    কাগজে ইকোপ্রিন্ট

    • আপনার কাগজটি জল বা ফিটকিরির দ্রবণে ভিজিয়ে রাখুন।
    • কাগজগুলোকে ভালভাবে ভিজতে দিন।
    • তবে একবারে অনেকগুলি কাগজ একসাথে না রাখা ভাল কারণ এতে আপনার কাগজগুলো ভালোভাবে ভিজবে না এবং ছিঁড়ে যেতে পারে।
    • পাতা এবং ফুলগুলো ভালভাবে পরিষ্কার করুন 
    • এখন ভিজিয়ে রাখা একটি কাগজের উপর পরিষ্কার ফুল এবং পাতাগুলো আপনার পছন্দ অনুযায়ী ভালোভাবে সাজিয়ে রাখুন, অন্য একটি কাগজ দিয়ে ফুল এবং পাতাগুলোকে ভালোভাবে ঢেকে দিন।
    • ফুল বা পাতা এবং কাগজগুলোকে একসাথে রাখতে পিন দিয়ে আটকে দিন।
    • ভালোভাবে ঢেকে রাখুন এবং ১ বা ১/২ ঘন্টা ভাপে দিন  
    • এরপর কাগজগুলোকে শুকাতে না দিয়ে নকশাগুলো ভালোভাবে ফুটিয়ে তোলার জন্য একরাত এভাবেই রেখে দিন।
    Related:  পাইকারি ব্যবসার আইডিয়া ; ১০ টি লাভজনক পাইকারি ব্যবসা

    অবশেষে পৃষ্ঠাগুলি খুলে দেখুন এবং প্রকৃতির মায়া উপভোগ করুন। একইভাবে, আপনি তামা বা লোহার শিটগুলি দিয়ে দুর্দান্ত কিছু নকশা তৈরি করতে পারেন।

    কাপড়ে ইকো প্রিন্ট তৈরির প্রক্রিয়া

    বিভিন্ন ধরণের রসালো ফুল, পাতা বা গাছের ছাল ব্যবহার করুন। এছাড়া আপনি যে কোনও ধরনের বা রংয়ের বন্যফুল ব্যবহার করতে পারেন, যা আপনার কাপড়কে দেবে এক বন্য পরিবেশের ছোঁয়া।

    eco print ব্যবহার

    এটি এত সহজ যে আপনি যেকোনও ধরণের সুতির কাপড় বা পাতলা স্বচ্ছ সিল্কের কাপড়ে সহজেই নকশা তুলতে পারবেন। যাইহোক, এখন প্রস্তুত প্রণালীর দিকে মনোযোগ দেওয়া যাক। 

    মৌলিক উপাদান:

    • সুতির সুতি কাপড় বা পাতলা সিল্কের কাপড়স্বচ্ছ সিল্কের কাপড়
    • বিভিন্ন ধরণের ফুল এবং পাতা
    • পিভিসি পাইপ (ঐচ্ছিক) 
    • ভাপে দেওয়া বা সিদ্ধ করার জন্য প্যান  
    • দড়ি 
    • চুলা 

    সতর্কতা:

    • শুকনো পাতা বা ফুল ব্যবহার করবেন না, কারণ কাপড়ে ছাপ গাঢ় হবে না।
    • ভাপে দেওয়ার সময় অবশ্যই কাপড়ে যাতে পানি না লাগে সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।
    • ফ্যাব্রিকের মান অবশ্যই ভাল হতে হবে। 

    তাহলে এবার ধাপগুলো সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক;

    • সাদা কাপড়টি সুন্দরভাবে বিছিয়ে দিন।
    • এবার পাতাগুলি বা ফুলগুলো আপনার পছন্দ মতো ছড়িয়ে কাপড়ের উপরে সাজিয়ে নিন।
    • খুব যত্নসহকারে অন্য কোনও কাপড় বা পলিথিন দিয়ে ফুল এবং পাতাগুলিকে ঢেকে দিন।
    • কাপড়ের টুকরোটি পাইপে পেঁচিয়ে শক্ত করে বেঁধে রাখুন, তবে কাপড়ে যেন কোন ভাঁজ না পড়ে, সে বিষয়ে সতর্ক থাকবেন। 
    • অবশেষে, এটিকে প্রায় ১ বা ১/২ ঘন্টা  গরম পানির উপর রেখে ভাপ দিন। এখন পুরোপুরি শীতল হওয়ার জন্য রেখে দিন এবং এক রাত বান্ডলটি এভাবেই রাখতে পারেন যেন রং ভালোভাবে কাপড়ে বসে যায়।   

    তবে ম্যাজিকটি দেখার জন্য যদি আপনার তর না সয়, তাহলে কিছুক্ষণের জন্য রেখে দিন। তারপর গিঁটটি খুলে দেখে নিন প্রকৃতির অপরূপ কারুকাজ!

    Related:  মহিলাদের জন্য ঘরে বসে ব্যবসা | 10 Best Business for women

    শেষ কথা 

    ইকো প্রিন্ট দিয়ে সাজানো যেকোনও ধরণের কার্ডে প্রাকৃতিক রং এবং নকশা এনে দেবে এক অদ্ভুত প্রশান্তির শিহরণ, যেখানে খুঁজে পাবেন আপনজনের ছোঁয়া। 

    শুধু তাই নয়, আশ্চর্যজনক বিষয়টি হলো ইকো প্রিন্টের কাজটি খুব সহজ এবং সাশ্রয়ী। এছাড়া, পাতার আকারগুলি প্রাকৃতিক নান্দনিকতা ফুটিয়ে তুলবে। এমনকি রঙিন নকশাগুলো হবে স্পষ্ট এবং  উজ্জ্বল। ফুল এবং পাতার রঙ আপনার মনে প্রকৃতির পরশ বুলিয়ে যাবে।

    Eco Print আপনার পোশাককে বন্য পরিবেশের ছোঁয়া দেবে, যা সাধারণ এবং প্রচলিত নকশার থেকে আলাদা হবে। আপনার ব্যক্তিত্ব অনন্য এবং আকর্ষণীয় করে তুলবে । 

    এছাড়া আপনি উদ্যোক্তা হওয়ার জন্য কিংবা ব্যবসা শুরু করতে সহজেই ইকো প্রিন্ট বেছে নিতে পারেন।

    তাহলে আর অপেক্ষা কিসের? পদ্ধতিগুলি নিজেই চেষ্টা করে  এবং ইকোপ্রিন্টের দুর্দান্ত ফলাফলগুলি নিজেই দেখে নিন।

    আপনি কি এর আগে ইকোপ্রিন্ট তৈরি করেছেন? কিংবা আর্টিকেলটি পড়ার পর চিন্তা করছেন কিছু করার? আমরা তবে আপনার কাজ দেখার অপেক্ষায় থাকবো।

    2 thoughts on “ইকো প্রিন্ট টিউটোরিয়াল : প্রাকৃতিকভাবে কাপড় ও কাগজ নকশা করার উপায়”

      1. ধন্যবাদ আপনাকে,এভাবে উৎসাহ দিয়ে পাশে থাকার জন্য।

        দোয়া করবেন যেন, আমরা সবার জন্য প্রতিবর্তনকে উপযোগী একটি প্লাটফর্ম হিসেবে গড়ে তুলতে পারি।

    Leave a Comment

    আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।